ঢাকা: সুস্থ ও মৃত্যুর হার দুটোই বাড়ছে বাংলাদেশে। শনিবার স্বাস্থ্য অধি দফতরের রিপোর্ট থেকে এমনই ধারণা মিলছে। তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নজরে দক্ষিণ এশিয়ার তিন দেশ ভারত, পাকিস্তান ও বাংলাদেশের করোনা সংক্রমণ চিন্তাজনক।

শনিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের সাংবাদিক সম্মেলনে অতিরিক্ত মহাপরিচালক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, করোনাভাইরাস থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৬৭৩ জন। মোট সুস্থ হলেন ৭০ হাজার ৭২১ জন।

তিনি আরও জানান, দেশে মোট ১ লক্ষ ৫৯ হাজার ৬৭৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছেন।করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখনও পর্যন্ত মোট ১ হাজার ৯৯৭ জন মৃত।

এদিকে সংক্রমণ রুখতে জোন ভিত্তিক লকডাউনের তালিকায় ঢাকার ওয়ারী এখন লাল তালিকাভুক্ত। শনিবার থেকেই এই জনবহুল এলাকায় ২১ দিনের জন্য লকডাউন চলবে। রেড জোন’ হিসেবে চিহ্নিত পুরান ঢাকার ওয়ারীতে লকডাউন চলবে ২৫ জুলাই পর্যন্ত। পুলিশ ও ও সেনাবাহিনী টহল দিচ্ছে।

ঢাকার মতোই প্রবল সংক্রমণ চট্টগ্রামে। তুলনায় খানিকটা নিরাপদ ময়মনসিংহ। তবে রাজধানী ঢাকার করোনা পরিস্থিতি চিন্তাজনক। ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, বাংলাদেশে করোনা রোগীদের মৃত্যু তালিকায় পুরুষ ১ হাজার ৫৮৭ ও মহিলা ৪১০ জন।আর সুস্থতার হার ৪৪ দশমিক ২৯ শতাংশ।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।