ঢাকা: করোনাভাইরাসে মৃত্যুপুরী হয়ে যাওয়া চিন থেকেই এসেছে বিপুল পরিমাণ চিকিৎসা সরঞ্জাম। তাই দিয়ে করোনা প্রতিরোধ লড়াইয়ে নামছে বাংলাদেশ সরকার। ২৬ মার্চ ৪৯ তম স্বাধীনতা দিবসের দিনেই এই উপহার পেয়ে আপ্লুত শেখ হাসিনার সরকার। ঢাকা বিমান বন্দরে সবকিছু বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর করেন ঢাকায় নিযুক্ত চিনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং।

চিনের কুনমিং থেকে এই সরঞ্জাম সম্ভারে আছে ১০ হাজার টেস্ট কিট, ১০ হাজার পিপিই ও ১ হাজার থার্মোমিটার।প্রথম দফায় বাংলাদেশকে দুই হাজার কিট ও চিকিৎসাসামগ্রী দিয়েছিল চিন। এর আগে ভারত সরকার ৩০ হাজার সার্জিক্যাল মাস্ক ও ১৫ হাজার হেড কভার বাংলাদেশকে দিয়েছে।

বুধবার ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের কাছে এই সব হস্তান্তর করেন। চিন সরকার জানিয়েছে, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিভিন্ন দেশকে সাহায্য করা হচ্ছে। বাংলাদেশেও দ্বিতীয়বারের মতো এসব টেস্ট কিট, পিপিই ও থার্মোমিটার পাঠানো হল। বিবিসি ও চিনা সংবাদ মাধ্যমের খবর, চিনে কমেছে করোনা প্রকোপে মৃত্যু। তবে ৪ হাজারের বেশি মৃত্যুর সাক্ষী এই দেশ। করোনাভাইরাসের হামলায় ইউরোপ ত্রস্ত। ইতালি, স্পেনে হাজারে হাজারে মানুষের মৃত্যু হচ্ছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পাঁচশোর বেশি মৃত। করোনা সংক্রমণ দক্ষিণ এশিয়াতেও শুরু করেছে। ভারত, পাকিস্তানে শয়ে শয়ে মানুষ আক্রান্ত। ভারতেই মৃত ১১ জন। হু জানিয়েছে, করোনা সংক্রমণে বাংলাদেশ প্রবল ঝুঁকির মধ্যে। এদিকে ভাইরাস সংক্রমণ ছড়াতে থাকায় চিন্তিত বাংলাদেশ সরকার লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেয়। তারই মাঝে ২৬ মার্চ কোনওরকমে ৪৯ তম স্বাধীনতা দিবসটি পালন করা হয়েছে।

রাষ্ট্রপতি মহ. আব্দুল হামিদ সেনা বাহিনির অভিবাদন গ্রহণ করেন। ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ পাকিস্তানি সেনার হামলার জবাব দিয়ে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানে শুরু হয় সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধ। পরে বাংলাদেশ তৈরি হলে এই দিনটি স্বাধীনতা দিবস হিসেবে পালিত হয়।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে লকডাউন শুরু হলেও ঢাকা থেকে বিভিন্ন গ্রামাঞ্চলে যাওয়ার প্রবল ভিড়ে সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা বাড়ছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রক সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মৃত ৫ জন, আক্রান্ত ৪৪ জন। সুস্থ হয়েছেন ১১ জন।এদিকে করোনা মোকাবিলায় সরকারি চিকিৎসা পরিকাঠামো যে কোনও সময়ে ভেঙে পড়ার আশঙ্কা। পর্যাপ্ত চিকিৎসা সরঞ্জামের অভাব বাড়ছিল। তা থেকে কিছুটা রেহাই পেল এই ধরণের সাহায্য।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ