পোচেস্ট্রুম: ইতিহাস গড়ল বাংলাদেশ৷ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠল বাংলাদেশে৷ সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে উড়িয়ে দিয়ে রবিবাসরীয় ফাইনালে ভারতের মুখোমুখি পদ্মাপাড়ের দেশ৷ অর্থাৎ রবিবার পোচেস্ট্রুমে অল এশিয়ান ফাইনাল৷

মঙ্গলবার প্রথম সেমিফাইনালে পাকিস্তানকে পর্যুদস্ত করে ফাইনালে ওঠেছে ভারত৷ টানা তিনবার অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠে ইতিহাস গড়েছে ভারত৷ আর বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে ছয় উইকেটে হারিয়ে প্রথমবার বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠে ইতিহাস গড়ল বাংলাদেশ৷ আইসিসি পূর্ণ সদস্য হওয়ার পর থেকে প্রথম কোনও আইসিসি টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠল ‘টাইগার্স’৷

কিউয়িদের বিরুদ্ধে ২১২ রান তাড়া করতে নেমে দারুণ ভালো হয়নি বাংলাদেশের৷ ৩২ রানে দুই ওপেনারকে হারালেও মহমুদুল হাসান জয়ের দুরন্ত সেঞ্চুরিতে হাসতে হাসতে ম্যাচ জিতে নেয় বাংলাদেশ৷ ওপেনিং জুটি ব্যার্থ হলেও বাকি সময়ে নিউজিল্যান্ডকে ম্যাচে ফিরতে দেননি বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানরা৷ কোয়ার্টার ফাইনালে দক্ষিণ আফ্রিকা ও সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে বিশ্বকাপের ফাইনালে বাংলাদেশ৷

দুরন্ত সেঞ্চুরি করে বাংলাদেশকে ফাইনালে তোলেন মহমুদুল হাসান৷ তৃতীয় উইকেটে তহিদ হৃদয়ের সঙ্গে ৬৮ এবং চতুর্থ উইকেটে শাহদাত হোসনের সঙ্গে ১০১ রান যোগ করে বাংলাদেশের নিশ্চিত জয়ে পৌঁছে দেন মহমুদুল হাসান৷ টুর্নামেন্ট প্রথম সেঞ্চুরি করেন তিনি৷তাঁর সেঞ্চুরিতে ভর করে ফাইনালে উঠে ইতিহাস রচনা করে বাংলাদেশ৷ ১২৭ বলের ইনিংসে ১০০ রান করার পথে ১৩টি বাউন্ডারি হাঁকান হাসান৷ এছাড়া হৃদয় ও শাহদাত দু’জনেই ৪০ রান করে করেন৷ এই তিন জনের ব্যাটে ৪৪.১ ওভারে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ৷

এদিন টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ৷ বোলিং করতে নেমে শুরুতেই নিউজিল্যান্ড ধাক্কা দেয় বাংলাদেশ বোলাররা৷ মাত্র ৭৪ রানে চার উইকেট হারায় কিউয়িরা৷ কিন্তু সেখান থেকে লড়াই করে নিউজিল্যান্ডের স্কোর দু’শো টপকাতে সাহায্য করেন বেকহ্যাম গ্রিন্যাল৷ শেষ পর্যন্ত ৭৫ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি৷

৮৩ বলের ইনিংসে দু’টি ছক্কা ও পাঁচটি বাউন্ডারি মারেন গ্রিন্যাল৷ এছাড়া ৪৪ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন নিকোলাস লিডস্টোন৷বাংলাদেশের হয়ে দারুণ বোলিং করেন শরিফুল ইসলাম৷ ১০ ওভারে ৪৫ রান খরচ করে নিউজিল্যান্ডের তিনটি উইকেট তুলে নেন তিনি৷ শামিম হোসেন ও হাসান মুরাদ দু’টি করে উইকেট নেন৷

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প