খুলনা: পশ্চিমবঙ্গের বিস্তীর্ণ এলাকা ও বঙ্গোপসাগরের উপকূল অঞ্চলে তাণ্ডবের পর বাংলাদেশে হামলা আমফানের। রাতেই দ্বিতীয়বার আঘাত করবে এই সামুদ্রিক ঘূর্ণিঝড়। ইতিমধ্যে বাংলাদেশের দিকে থাকা সুন্দরবনের অংশ পেরিয়ে স্থলভূমির দিকে এগোচ্ছে সুপার সাইক্লোন।

প্রাথমিক আঘাতে খুলনার উপকূলীয় এলাকা তছনছ। বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। ৪ জনের মৃত্যুর সংবাদ এলেও সেই সংখ্যা আরও বাড়বে বলেই আশঙ্কা। বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর জানাচ্ছে, বঙ্গোপসাগর লাগোয়া পশ্চিমবঙ্গের তিনটি উপকূলীয় জেলা দক্ষিণ ২৪ পরগনা, উত্তর ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর ছাড়িয়ে আমফান ঘূর্ণিঝড়টি ১৫০ কিলোমিটার বেগে বাংলাদেশে বইছে।

আবহাওয়া অধিদফতর আরও জানাচ্ছে, কোনও ঘূর্ণিঝড় যখন সাগর থেকে উপকূল অতিক্রম করে স্থলভাগে প্রবেশ করে, তখন কিছু সময় তাণ্ডব চালিয়ে হাল্কা হয়। কয়েক ঘণ্টা পর ফের তাণ্ডব শুরু হয়ে যায় ঝড়ের। এই দ্বিতীয়বারের ধাক্কায় হতাহতের ঘটনা ঘটে।

সেই দিকটি খতিয়ে দেখে তিনটি উপকূলীয় বিভাগ, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রামের সব জেলা-উপজেলা প্রশাসন ও জনগণকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়েছে সুন্দরবন সহ বাংলাদেশের উপকূলে। সুপার সাইক্লোনে অন্তত ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

নিহতদের মধ্যে পটুয়াখালীর দু’জন ও ভোলার দু’জন। এছাড়া এর প্রভাবে দেশের বিভিন্ন স্থানে অনেক ঘর-বাড়ি ও গাছপালা ভেঙে পড়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ