ঢাকা:  শুটিংয় চলাকালীন গুরুতর আহত বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেতা বাপ্পী চৌধুরী। গাজীপুর জাতীয় উদ্যানে চলছিল ভৌতিক চলচ্চিত্র ‘ডেঞ্জার জোন’-এর শুটিং। সেখানে একটি বিপদজনক শট নিতে গিয়ে অজ্ঞান হয়ে যান এই তারকা।

জানা গিয়েছে, ক্রেনের হেঁচকা টানে শূন্য থেকে আছড়ে পড়েন তিনি। সেই সময় তিনি অজ্ঞান হয়ে যান বলে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে। আজ বুধবার বেলা ১টার দিকে চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঘটে। এর পর থেকে শুটিং বন্ধ রাখা হয়েছে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। ঘটনার সময় নায়কের সঙ্গেই ছিলেন ছবির নায়িকা জলি।

শুটিং ইউনিটের একজন স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, একটি অ্যাকশন দৃশ্যে অংশ নিয়েছিলেন বাপ্পী ও জলি। কোমরে বাঁধা ছিল ক্রেনের কালো সুতা। দৃশ্যটি ছিল জাদুর ধাক্কায় উড়ে যাবেন বাপ্পী। কিন্তু কোমরে বাঁধা সুতোর টানটা এতটাই জোরে হয়েছিল যে ঘাড়টা বাঁকা হয়ে নিচের দিকে চলে যায়। বাপ্পীর মাংস পেশিতে মারাত্মক টান লেগেছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

জানা গিয়েছে, বাপ্পীকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বিশ্রামে রাখা হয়েছে। সন্ধ্যা নাগাদ ঢাকায় ফেরার কথা উন্নত চিকিৎসার জন্য। সিনেমাটি পরিচালনা করছেন বেলাল সানি। এতে বাপ্পী-জলি ছাড়াও অভিনয় করছেন ডিজে সোহেল, অঞ্জলি সাথি, সীমান্ত, শামীম, রাজু সরকার প্রমুখ। ‘ডেঞ্জার জোন’ প্রযোজনা করছে সাকসেস মাল্টিমিডিয়া। এমনটাই বাংলাদেশের স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.