কলকাতা : বিদ্যাসাগর মহাশয়ের জন্মদিন উপলক্ষে সারা বাংলা জুড়ে দিনটিকে ‘বাংলার জাতীয় শিক্ষক’ দিবস হিসেবে মহাসমারোহে পালন করা হবে বাংলা পক্ষের তরফে। এই উপলক্ষে বাংলার ২১ টি জেলায় জেলার ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিয়েছন এমন ২১ জন মহান শিক্ষাব্রতীকে ‘বাংলার জাতীয় শিক্ষক সম্মান -১৪২৭’ সম্মান প্রদান করা হবে।

বাংলা পক্ষের তরফে ‘জাতীয় শিক্ষক সম্মান’ পাবেন, পূর্ব বর্ধমান: ড: অমল কুমার কুমার, দ: ২৪ পরগনা: আলতাপ সেখ, বাঁকুড়া: বাসুদেব বন্দ্যোপাধ্যায় , কলকাতা : নির্মল চন্দ্র সাহা, মুর্শিদাবাদ : ডাঃ এম এ রশিদ, উঃ ২৪ গ্রামীন: বরুন বিশ্বাস (মরণোত্তর) উঃ ২৪ শহরাঞ্চল: চিত্রদীপ সোম, পূঃ মেদিনীপুর: হিমাংশু শেখর বেরা, উঃ ২৪ শিল্পাঞ্চল: মুরারি মোহন সুর, শিলিগুড়ি : ডঃ প্রকাশ অধিকারী , মালদা: মো মোনিরুল ইসলাম, পশ্চিম বর্ধমান : নিরঞ্জন সর্দার, নদীয়া: ভবতোষ মন্ডল, জলপাইগুড়ি : অনিত কুমার ঘোষ, বীরভূম : শ্যামল মাজি, হাওড়া: শ্রী কৃষ্ণধন কোলে, হুগলি শিল্পাঞ্চল : প্রবীর কুমার ঘোষ, পঃ মেদিনীপুর : দীপঙ্কর ষণ্ণিগ্রাহী, পুরুলিয়া : জলধর কর্মকার, কোচবিহার: সামসুজ্জামান মিঞা, উত্তর দিনাজপুর: শুভেন্দু মুখার্জী

বাংলা পক্ষ জানাচ্ছে, ‘ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর বাংলা ও বাঙালির জাতীয় শিক্ষক। বাংলা তথা ভারতে শিক্ষা বিস্তারে তিনি অদ্বিতীয়। নারী শিক্ষা প্রসারে তাঁর অবদান গোটা পৃথিবীতে স্বীকৃতির দাবি রাখে। অন্যান্য বছরের মতো ২৬ সেপ্টেম্বর, পণ্ডিত ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর মহাশয়ের জন্মদিন উপলক্ষে সারা বাংলা জুড়ে ঐ দিনটিকে ‘বাংলার জাতীয় শিক্ষক’ দিবস হিসেবে মহাসমারোহে পালন করা হবে।’ তারা আরও জানাচ্ছে, ‘ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর কে প্রাপ্য সম্মান দিতে পারি আমরাই৷ তাই রাজ্য ও কেন্দ্র সরকারের কাছে আমাদের দাবী, বাংলার এই মহান শিক্ষকের জন্মদিন উপলক্ষে সংগঠনের তরফ থেকে রাজ্য সরকারের কাছে আবেদন করা হয়েছে পণ্ডিত ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর মহাশয়ের জন্মদিনটিকে ‘বাংলার জাতীয় শিক্ষক দিবস’ হিসেবে ঘোষণা করুন। ২৬ সেপ্টেম্বরকে “রাষ্ট্রীয় শিক্ষক দিবস” এর স্বীকৃতি দিতে কেন্দ্র সরকারের কাছে দরবার করুক বাংলার সরকার। একই সঙ্গে রাষ্ট্রীয় শিক্ষা মন্ত্রক তথা সরকারের কাছে আবেদন এই দিনটিকে ‘রাষ্ট্রীয় শিক্ষক দিবস’ হিসেবে গ্রহণ করুন। নবান্নে গিয়ে মাননীয় মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে লেখা চিঠি জমা করা হয়েছে এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে চিঠ দেওয়া হয়েছে।’

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।