স্টাফ রিপোর্টার , কলকাতা : বাঙালি নারী বিদ্বেষী, কটু ও অশ্লীল মন্তব্যকারী ঋষভ সিং এর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিল রাজ্যের মহিলা কমিশিন। কিছুদিন ধরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় বাংলার নারী ও শিশুদের বিরুদ্ধে হত্যার ধমকি এবং নানান কটু মন্তব্য করছিল এই ব্যক্তি। এবার তার বিরুদ্ধে কলকাতা পুলিশের কাছে তদন্তের আবেদন করল মহিলা কমিশন। এই ঘটনায় আনন্দিত বাংলা পক্ষ।

দীর্ঘ সময় ধরে সোশ্যাল মিডিয়ার একাধিক প্লাটফর্মে বাঙালী নারী ও শিশুদের বিরুদ্ধে অশ্লীল পোস্ট ও মন্তব্য করছিল অভিযুক্ত ঋষভ সিং। যা বাংলার মহিলাদের জন্য খুবই অপমানজনক একটি বিষয়। এমনকি এক উগ্রপন্থী সংগঠনের মন্তব্য উদ্ধৃত করে, বাংলায় নারী ও শিশুদের গনহত্যার হুমকিও দেয় সে। এমন কদর্য, বেআইনি মন্তব্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানায় বাংলার জাতীয়তাবাদী সংগঠন বাংলা পক্ষ।

ঋষভ সিং এর বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ জানাতে গেলে ফিরিয়ে দেয় বিধাননগর সাইবার ক্রাইম থানা। এরপর সরাসরি উপযুক্ত প্রমাণ সহ রাজ্যের মহিলা কমিশিনের চেয়ারপার্সন মাননীয়া লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন বাংলাপক্ষের এক সদস্য। শুক্রবার বাংলা পক্ষের এই অভিযোগের ওপর ভিত্তি করে যথাযথ ব্যবস্থা নেয় রাজ্য মহিলা কমিশন। কলকাতা পুলিশকে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে ঋষভ সিং-এর বিরুদ্ধে তদন্তের আবেদন জানানো হয়েছে মহিলা কমিশন তরফে। বাংলা পক্ষ ঋষভ সিং-এর বিরুদ্ধে যে কঠিন শাস্তির দাবি জানিয়েছিল আজ তার প্রথম পদক্ষেপ নেওয়া হলো। এটা তাদের কাছে বড়ো সাফল্য বলে মনে করছেন বাংলা পক্ষের সদস্যরা।

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে তাঁর বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীর প্রসঙ্গে তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় নিশানা করা হচ্ছে বাঙালি মেয়েদের। ইতিমধ্যেই প্রতিবাদ জানিয়ে কলকাতা পুলিশের সাইবার ক্রাইম বিভাগে একাধিক অভিযোগ জমা পড়েছে। তার ভিত্তিতে তদন্তে নেমেছে লালবাজার। দোষীদের কড়া শাস্তির আশ্বাস দেওয়া হয়েছে পুলিশের পক্ষ থেকে। গত এক সপ্তাহে মহিলা কমিশনের কাছেও বেশ কয়েকটি অভিযোগ জমা পড়েছে। যা ইতিমধ্যেই কলকাতা পুলিশের সাইবার সেলে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও