বালুরঘাটঃ প্রশাসক বসিয়ে বালুরঘাট পুরসভা চালানো হলেও এখনই নির্বাচনের পথে যাচ্ছে না রাজ্য সরকার। পুরসভায় নির্বাচনের দাবীতে বিরোধীরা একাধিকবার আন্দোলন চালিয়ে আসলেও রাজ্য সরকার তাতে কোন আমলই দিতে রাজি নয়। উলটে বালুরঘাট পুরসভায় শাসক দলের কর্তৃত্ব কায়েম রাখতে তিন সদস্যের বোর্ড গঠন করেছে সরকার। পুরসভা সূত্রে জানা গিয়েছে প্রশাসক তথা সদর মহকুমাশাসক ইশা মুখার্জীকে চেয়ারম্যান সেই সঙ্গে তৃণমূল সভাপতি অর্পিতা ঘোষ ও দলীয় আরেক নেতা শংকর চক্রবর্তীকে বোর্ডের সদস্য করা হয়েছে।

২০১৮ সালের অক্টোবর মাসে বালুরঘাট পুরসভার তৃণমূল পরিচালিত তৎকালীন পুরবোর্ডের মেয়াদ সম্পূর্ণ হয়ে গেলেও আজ অবধি নির্বাচনের কোন উদ্যোগ নেয়নি রাজ্য সরকার। ফলে কাজকর্ম সব একপ্রকার লাটেই উঠেছে। নাগরিক পরিষেবা পাওয়ার ক্ষেত্রে চরম সমস্যায় পড়েছেন সাধারণ মামুষ। বাড়ি বাড়ি পানীয় জল সরবরাহ ও প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার বাড়ি তৈরীর মত সরকারি প্রকল্পগুলি বন্ধ হয়ে রয়েছে।

দ্রুত নির্বাচনের দাবিতে বিরোধীরা দাবি জানালেও রাজ্য সরকার কোন উদ্যোগ নিচ্ছে না বলে অভিযোগ। এই অবস্থার মধ্যে তৃণমূলের প্রাক্তনসাংসদ ও প্রাক্তনমন্ত্রী যথাক্রমে অর্পিতা ঘোষ ও শংকর চক্রবর্তীকে পুরসভার কর্তৃত্বে বসানোয় নতুন করে বিতর্ক উস্কে দিয়েছে। মঙ্গলবারই বালুরঘাট সদর মহকুমাশাসক ইশা মুখার্জীকে চেয়ারম্যান। সেই সঙ্গে অর্পিতা ঘোষ ও শংকর চক্রবর্তীকে দিয়ে পুরসভার বোর্ড ঘোষনা করেছে রাজ্য সরকার। নির্বাচন না করিয়ে বোর্ড গঠনের এই সীদ্ধান্তে রাজনৈতিক মহলে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

প্রাক্তন কাউন্সিলর তথা আরএসপি নেতা শাসকদলের নিজেদের দুইজনকে সামিল করিয়ে বোর্ড ঘোষনার এই সীদ্ধান্তকে অগণতান্ত্রিক বলে জানিয়েছেন। তিনি সরাসরি অভিযোগ করে বলেন। বিগত তৃণমূল বোর্ডের সময়ে পুরসভার কোন উন্নয়নই হয়নি। উলটে বিভিন্ন প্রকল্পে ব্যাপক কাটমানী দুর্নীতি অভিযোগও রয়েছে তৃণমূল কাউন্সিলরদের একাংশের বিরুদ্ধে। সেই সমস্ত ঘটনাগুলি নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের কথা আঁচ করতে পেরেই নির্বাচন চাইছে না তৃণমূল বলেও তিনি অভিযোগ করেছেন।

এদিকে কংগ্রেস নেতা প্রাক্তন কাউন্সিলর স্বপন বিশ্বাস অভিযোগ করে বলেন কাটমানী ও সরকারী অর্থ তছরুপের ঘটনাগুলিকে ধামাচাপা দেওয়ার লক্ষ্যেই দলের প্রভাবশালী দুইজনকে অগণতান্ত্রীক ভাবে নির্বাচিত নন দলীয় এমন দুইজনকে দিয়ে বোর্ড ঘোষনা করেছে রাজ্য সরকার। অবিলম্বে নির্বাচনের মাধ্যমে পুরবোর্ড গঠন করে বালুরঘাট পুরসভার হৃতগৌরব ফিরিয়ে দেওয়ার দাবিও তিনি করেছেন।

২১জুলাইয়ের কর্মসূচিতে অর্পিতা ঘোষ কলকাতা থাকায় তাঁর বক্তব্য পাওয়া যায়নি। এদিকে রাজ্য সরকার ঘোষিত বালুরঘাট পুরসভার বোর্ড সদস্য তথা প্রাক্তনমন্ত্রী শংকর চক্রবর্তী কাগজ হাতে না পাওয়া অবধি এব্যাপারে কিছু জানাতে চান নাই।