শংকর দাস, বালুরঘাট: এলাকার মানুষের স্বপ্ন ছিল রথের মেলার মজা নেবেন। রথের দিন রথের দড়ি টেনে পূণ্য অর্জন করবেন। স্থানীয়দের সেই স্বপ্ন পূরণ করলেন পেশায় ইলেক্ট্রিক মিস্ত্রি মদন দেবনাথ।

তিনি নিজের হাতে জগন্নাথ-সুভদ্রার মূর্তি ও রথ গড়ে রাস্তায় নামালেন। তাঁর তৈরি এই রথের দড়ি টেনে পূণ্যার্জন ও মেলায় মেতেছেন বাসিন্দারা। প্রায় ১১ ফিট উচ্চতার এই রথটি তৈরি করতে খরচ হয়েছে তিরিশ হাজার টাকা। এমনকী, সেই রথের অধিষ্ঠিত জগন্নাথ বলরাম ও শুভদ্রার মূর্তিও নিজের হাতেই গড়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন: রাজনীতির নয়, ধর্মের রথ তৈরি করবেন মমতা

শনিবার সকালে এলাকার মানুষ নিজেদের রাস্তায় মদনের তৈরি রথের দড়ি টেনে তা গড়িয়ে নিয়ে যান। রথযাত্রা উপলক্ষ্যে বালুরঘাট পুরসভার ১০ ওয়ার্ডের অন্তর্গত একে গোপালন কলোনি এলাকায় এই প্রথম রথের মেলার আয়োজন হয়েছে। মেলার বালুরঘাটের অন্যান্য এলাকা থেকেও বহু মানুষ সামিল হয়েছিলেন।

১০ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর বর্ণিলা সরকার জানিয়েছেন, বালুরঘাটের রথতলা দিপালীনগর ও পাওয়ার হাউসে রথের মেলা বসলেও তাঁদের এলাকায় এতদিন তা হত না। মদন বাবুর নিজস্ব উদ্যোগে এবার এলাকার মানুষের সকাল থেকেই রথ উৎসবে মেতেছেন। এমনকি তিনি নিজেও এই প্রথম নিজেদের এলাকায় রথ টানলেন।

আরও পড়ুন: ২০০ কোটি টাকা প্রতারণার অভিযোগে গ্রেফতার চিটফান্ড কর্তা

এদিন রথের কারিগর মদন দেবনাথ জানিয়েছেন যে তাঁদের এই এলাকায় রথের মেলা হয় না। এমনকী, এখান দিয়ে কোন রথও যায় না। স্বাভাবিক ভাবেই ইচ্ছে থাকলেও এলাকার মানুষজন কেউ রথের দড়ি টানার সাধ পূরণ করতে পারেন না। এই কারণে তাঁর বহুদিনেরই সাধ ছিল যে নিজের হাতে রথ বনিয়ে এলাকায় মেলার আয়োজন করবেন।

গত এপ্রিল মাস থেকে রথ তৈরির কাজ শুরু করেছিলেন। ইলেক্ট্রিকের মিস্ত্রির কাজ করে যে ক’টা পয়সা পান তা থেকে কিছু কিছু করে জমিয়ে সরঞ্জাম কিনেছিলেন। রথ ও মূর্তি তিনটি তৈরি করতে খরচ লেগেছে তিরিশ হাজার টাকা।

আরও পড়ুন: সমস্ত রেকর্ড ভাঙার পথে ‘সঞ্জু’