শংকর দাস বালুরঘাট: নমুনা পরীক্ষায় পজেটিভ রেজাল্টের খবর পেয়েই বাড়ি ছেড়ে পালালেন করোনায় আক্রান্ত ভিন রাজ্যের কোয়াক ডাক্তার। দীর্ঘ প্রায় ১২ ঘণ্টারও বেশি সময়ের চেষ্টায় অবশেষে করোনা আক্রান্ত ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করে বালুরঘাটের প্রয়াস আত্রেয়ী নামক কোভিদ হাসপাতালে ভর্তি করাতে সক্ষম হয় পুলিশ।

রবিবার রাতে দক্ষিণ দিনাজপুর তপন এলাকার আরও একজন করোনা আক্রান্তের সন্ধান পায় স্বাস্থ্য দফতর। স্থানীয় রামচন্দ্রপুর এলাকায় বাড়ি ওই ব্যক্তি হরিয়ানা থেকে গত ১৩ মে ফিরে আসেন। ১৪ মে তার লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে মালদহ মেডিক্যাল কলেজে পাঠানো হলে রবিবার তার রেজাল্টে পজিটিভ ধরা পড়ে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, নমুনা পরীক্ষার রেজাল্ট পজিটিভ জানা মাত্রই ডেপুটি-সিএমওএইচ ও এসডিওর নেতৃত্বে পুলিশ রামচন্দ্রপুর এলাকায় পৌঁছয়। প্রশাসনের লোকজন গ্রামে পৌঁছনোর খবর পাওয়া মাত্রই করোনা আক্রান্ত ওই ব্যক্তি বাইক চালিয়ে মালদহে আত্মীয়র বাড়িতে গিয়ে আত্মগোপন করেন বলে অভিযোগ।

আক্রান্তের সঙ্গে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সম্পর্কযুক্ত পরিবারের লোকেরাও পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে রাতেই পুলিশ ও স্বাস্থ্যকর্মীরা তাঁদের ছয়জনকে উদ্ধার করে কোয়ারেন্টাইনে লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে। অন্যদিকে আক্রান্ত ব্যক্তির খোঁজে রাতেই প্রশাসন তাঁর মোবাইল নম্বর ট্র্যাক করতে শুরু করে।

কিন্তু আবহাওয়া দুর্যোগপূর্নের জন্য কারণে নেটওয়ার্ক খারাপে তাতে ব্যর্থ হয়। সোমবার দিনের আলো ফুটতেই ফের প্রশাসন তাঁর খোঁজে অভিযানে নামে। প্রশাসনের সক্রিয়তায় অবশেষে ভয় পেয়ে বাড়ি ফিরে আসেন তিনি। গোপনসূত্রে এই খবর পাওয়ামাত্রই প্রশাসনের টিম সেখানে গিয়ে হাজির হয়। অনেক চেষ্টায় পরিশেষে প্রশাসন তাঁকে উদ্ধার করে কোবিদ হাসপাতালে ভর্তি করাতে সফল হয়।

শুধু তাইই নয় সচেতন প্রতিবশিদের প্রচেষ্টায় পরিবারের বাকি সদস্যদেরও উদ্ধার করেছে প্রশাসন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জেলা প্রশাসনের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, রবিবার রাতে তপনের রামচন্দ্রপুরে বাড়ি একজনের নমুনা পরীক্ষার রেজাল্ট পজিটিভ পাওয়া যায়। রাতেই তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তির জন্য রামচন্দ্রপুরে গেলে আক্রান্ত ওই ব্যক্তি পালিয়ে যান।

অবশেষে সোমবার দুপুরে তাকে উদ্ধার করে বালুরঘাটের কোভিদ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আক্রান্ত ওই ব্যক্তি হরিয়ানাতে থাকতেন। সেখানে কোয়াক ডাক্তারের কাজ করতেন বলে নিজে জানিয়েছেন। তাঁর সাথে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সম্পর্কযুক্ত মোট ১৭ জনকে কোয়ারেন্টাইনে নিয়ে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব