বালি: হাওড়ার বালিতে অদ্ভুত-দর্শন মশা দেখতে উপচে পড়া ভিড়। এক ইঞ্চি দৈর্ঘ্যের ওই মশা বিরল প্রজাতির বলে মত অনেকের। অনেকে আবার মশাটিকে ‘বিষধর’ বলেও মনে করেন। মশাটিকে আপাতত হাওড়া পুরসভার হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। মশাটি আসলে ঠিক কোন প্রজাতির তা পরীক্ষার পরই জানা যাবে।

শনিবার সকালে বালি দমকল অফিসের সামনে হাইড্রেনের ধারে ল্যাম্পপোস্টের কাছে ওই মশাটিকে দেখতে পাওয়া যায়। বালি দমকল বিভাগের কর্মী বিশ্বনাথ চক্রবর্তী মশাটিকে সর্বপ্রথম দেখতে পান। নিজের উদ্যোগেই পরে মশাটিকে একটি টিউবে সংগ্রহ করে রাখেন তিনি।

এদিকে, এক ইঞ্চি দৈর্ঘ্যের মশা দেখতে এলাকার অনেকেই সেখানে গিয়ে ভিড় করেন। এটি কোনও রোগবাহিত মশা কি না তা নিয়ে খানিকটা আতঙ্কও তৈরি হয় এলাকায়। অনেকে কৌতূহলবশতও মশা দেখতে ভিড় জমান। পরে এই মশা উদ্ধার সম্পর্কে হাওড়া পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগে খবর দেওয়া হয়।

বালির দমকল অফিসের কর্মীদের তৎপরতায় মশাটিকে উদ্ধার করে টিউবে ভরে পরে সেটি হাওড়া পুরসভার হাতে তুলে দেওয়া হয়। পতঙ্গবিদকে দিয়ে পরীক্ষা করিয়ে কলকাতার পরীক্ষাগারে মশাটিকে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুরসভা কর্তৃপক্ষ। এদিকে, হাওড়া পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগের প্রাক্তন মেয়র পারিষদ ভাস্কর ভট্টাচার্য জানান, ওই মশাটিকে পুরসভার পতঙ্গবিদকে দিয়ে পরীক্ষা করানো হবে। এরপর মশাটি জারে ভরে কলকাতায় পরীক্ষাগারে পাঠানো হবে।