পিয়ং ইয়ং : তারা যে বুধবার সাবমেরিন থেকে একটি নতুন ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র সফলভাবে পরীক্ষা করেছে তা নিশ্চিত করতে উত্তর কোরিয়া নিশ্চিত করেছে ৷ আমেরিকার সঙ্গে নতুন করে পরমাণু নিয়ে আলোচনা শুরুর আগের মুহূর্তে দেশটি এ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করল।

কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কেসিএনএ খবরে বলা হয়েছে, ওই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার সময় সেখানে দেশের সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন উপস্থিত ছিলেন না৷ তবে তিনি এই পরীক্ষার জন্য দেশের বিজ্ঞানীদেরকে উষ্ণ অভিবাদন জানিয়েছেন।

বার্তা সংস্থার খবর অনুসারে, পুকগুকসং-৩ নামের ক্ষেপণাস্ত্রটি পূর্বাঞ্চলীয় ওনসান শহরের কাছে সমুদ্রে অবস্থিত সাবমেরিন থেকে ছোঁড়া হয়েছে। এর আগে দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনী বলেছিল, পিয়ংইয়ং একটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছে এবং সম্ভবত সাবমেরিন থেকে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করা হয়েছে। ক্ষেপণাস্ত্রটি জাপানের জলসীমার এক্সক্লুসিভ ইকোনমিক জোনে গিয়ে পড়ে।

কেসিএনএ জানিয়েছে, সাবমেরিন থেকে এই ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা সফল হওয়ার বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। যখন শত্রুরা নানামুখী চাপ সৃষ্টি করছে তখন উত্তর কোরিয়ার সামরিক শক্তি বৃদ্ধির ব্যাপারে এ ক্ষেপণাস্ত্র অনেক বড় ভূমিকা থাকলেও প্রতিবেশীদের জন্য এটি কোনও হুমকি নয়।

উত্তর কোরিয়া ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার পর গতকাল জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবে একে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে পাস হওয়া প্রস্তাবের লঙ্ঘন বলে উল্লেখ করেছিল। দক্ষিণ কোরিয়াও জোরালো উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।