কলকাতা: ফের কেন মোহনবাগানে সই করলেন তা নিয়ে বলবন্ত সিং-কে অনেকেই জিঞ্জাসাবাদ করছেন৷ এর সন্তোষজনক ব্যাখাও দিচ্ছেন তিনি৷ ফের জানালেন কেন বাগানে সই করেছেন৷ মোহন ফুটবলারটি সাফ বলেন কোচ সঞ্জয় সেনের জন্যই তিনি সবুজ-মেরুন খেলছেন৷
বলবন্ত বলেন, ‘‘কোচ সঞ্জয় সেনের জন্যই মোহন বাগানে সই করলাম। ওঁর কোচিংয়ে খেলতে ভালো লাগে। ইস্ট বেঙ্গলের লোভনীয় অফার থাকা সত্ত্বেও যাইনি। এবার লক্ষ্য, প্রথম একাদশে সুযোগ কাজে লাগানো।’ গতবার জেজে এবং কর্নেল গ্লেনের সঙ্গে প্রথম একাদশে ঢোকার লড়াই ছিল। এবার গ্লেনের পরিবর্তে এসেছেন ডাফি। প্রসঙ্গক্রমে বলবন্তের বক্তব্য, ‘সুস্থ প্রতিযোগিতা সবসময় প্রয়োজন। জেজে এবং ডাফি, দু’জনেই দারুণ স্ট্রাইকার। তবে ওদের সঙ্গে লড়াই করেই জায়গা করে নিতে হবে। এখন আমি সম্পূর্ণ চোটমুক্ত। আর এর জন্য কৃতজ্ঞ থাকব গার্সিয়ার কাছে। ব্রাজিলিয়ান ফিজিক্যাল ট্রেনারটি যেভাবে আমায় ফিট করে তোলার নেপথ্য কাজ করেছেন তা ভোলার নয়।’ নতুন বছরের লক্ষ্য জানাতে গিয়ে বলবন্ত বলেন, ‘দলের বাকিদের সঙ্গে অনুশীলন করে নিজেকে আরও ধারালো করাই আমার লক্ষ্য।’
কবে অনুশীলনে নামবেন বলবন্ত? কোচ সঞ্জয় সেনের উত্তর, ‘জ্বর হওয়ায় কিছুটা দুর্বল হয়ে পড়েছে ও। আমি ওকে প্র্যাকটিসে নামার জন্য জোর দিচ্ছি না। বলবন্ত যদি মনে করে, বুধবার থেকে শুরু করবে তাহলে তাই হবে। না হলে বৃহস্পতিবার।’

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।