চেন্নাই: কোভিড মুক্ত হয়ে দেশে ফিরলেন চেন্নাই সুপার কিংসের (Chennai Super Kings) ব্যাটিং কোচ মাইক হাসি (Michael Hussey)৷ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন সিএসকে-র বোলিং কোচ লক্ষ্মপতী বালাজি (L Balaji)৷ মঙ্গলবার ফ্র্যাঞ্চাইজির তরফে এই খবর সোশাল মিডিয়ায় জানানো হয়৷ সিএসকে-র তরফে এদিন টুইটারে লেখা হয়,”Back in super high spirits! Recovered and returned home safe!”

২০২১ আইপিএল (IPL 2021) স্থগিত হওয়ার ঠিক আগে করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন প্রাক্তন ভারতীয় পেসার তথা চেন্নাই সুপার কিংসের বোলিং কোচ বালাজি৷ সে সময় চেন্নাই সুপার কিংস ছিল দিল্লিতে৷ একাধিক ফ্র্যাঞ্চাইজির একাধিক ক্রিকেটার বায়ো-বাবলের মধ্যে থেকেও করোনা আক্রান্ত হওয়ায় আর ঝুঁকি নিয়ে চায়নি বিসিসিআই৷ ৪ মে আইপিএল স্থগিত করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বোর্ড৷ আইপিএল স্থগিত হওয়ার পর জানা যায় সিএসকে-র ব্যাটিং কোচ হাসিও করোনা আক্রান্ত৷

চিকিৎসার জন্য এই দুই সাপোর্ট স্টাফকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে (air ambulance) করে দিল্লি থেকে চেন্নাই (Chennai) উড়িয়ে আনা হয়েছিল৷ চেন্নাইয়ে এই দু’জনের চিকিৎসার সব ব্যবস্থা করে চেন্নাই ফ্র্যাঞ্চাইজি৷ বালাজি ও হাসির কোভিড টেস্টের রিপোর্ট কিছুদিনের মধ্যে নেগেটিভ আসে৷ প্রথম নেগেটিভ রিপোর্টের পর অস্ট্রেলিয়ান সংবাদপত্র সিডনি মর্নি হেরার্ল্ড-কে হাসি জানিয়েছিলেন, ‘আমি বিশ্রামে রয়েছি৷ এখনও আগের থেকে অনেক ভালো আছি৷ সিএসকে আমার জন্য যা করছে, তার জন্য কৃতজ্ঞ৷ এই মহূর্তে ভারতের অবস্থা অত্যন্ত ভয়ানক৷ তবে এর মধ্যেও আমি প্রচুর আশীর্বাদ ও ভালোবাসা পেয়েছি৷ ভারত ও অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট ফ্যানেদের এই বার্তা পাঠানোর জন্য আমি কৃতজ্ঞ৷’

কিন্তু দু’দিনের মধ্য আবার হাসির রিপোর্ট পজিটিভ আসে৷ তবে কয়েকদিন পরেই ফের প্রাক্তন এই অজি ব্যাটসম্যানের রিপোর্ট নেগেটিভ আসায় স্বস্তি ফেরে ফ্র্যাঞ্চাইজি শিবিরে৷ গত শুক্রবার চেন্নাই সুপার কিংস-এর সিইও কাশী বিশ্বনাথন জানিয়েছিলেন, ‘মাইক হাসির আরটি-পিসিআর রেজাল্ট নেগেটিভ এসেছে। ও দ্রুত সুস্থ হচ্ছে। তবে ও কবে দেশে ফিরবে, তা এখনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি৷ মলদ্বীপ হয়ে ফিরবে, নাকি সরাসরি অস্ট্রেলিয়ায় ফিরবে।’

আইপিএলে খেলা হাসি হলেন সপ্তম ক্রিকেটার ও সাপোর্ট স্টাফ, যাঁরা কোভিডে আক্রান্ত হয়েছিলেন৷ করোনা আক্রান্ত হওয়ায় আইপিএল স্থগিত হয়ে যাওয়ার পরও বাকি অস্ট্রেলিয়ানদের মতো ভারত ছাড়তে পারেননি হাসি৷ তবে সোমবারই ৩৮ জন অজি ক্রিকেটার, কোচ ও সাপোর্ট স্টাফেদের সঙ্গে সিডনি পৌঁছন সিএসকে-র এই ব্যাটিং কোচ৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.