তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়াঃ বিজেপির দেখানো পথেই এবার পুরভোট ঘোষণার আগেই প্রচারে নেমে পড়লো শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। বাঁকুড়া পুর এলাকায় দলীয় প্রার্থীর নাম ছাড়াই শুধুমাত্র প্রতিক চিহ্ন আর ভোট দেওয়ার আবেদন জানিয়ে দেওয়াল লিখন শুরু করলেন তৃণমূল নেতা ও উপ-পুরপ্রধান দিলীপ আগরওয়াল।

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহেই বাঁকুড়া শহরে প্রথম দেওয়াল লিখনের কাজ শুরু করেছে বিজেপি। দলের নেতা ও কাউন্সিলর নীলাদ্রি দানা প্রার্থীর নাম ছাড়াই দেওয়াল লিখনের কাজ শুরু করে শাসক দলকে প্রচারের প্রথম পর্বে টেক্কা দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু শাসক শিবিরও বিজেপিকে সেই সুযোগ দিতে নারাজ। সেকারণেই তৃণমূলের তরফেও তড়িঘড়ি মাঠে নামা বলে জেলা রাজনৈতিক মহলের একাংশ মনে করছেন। উপ-পুরপ্রধান দিলীপ আগরওয়াল বলেন, মার্চেই ভোট ঘোষণা হতে পারে। ভোট সম্ভবত ওই মাসের ১৯ বা ২৪ তারিখে। সেকারণেই প্রচার কাজ আমরা শুরু করলাম।

প্রসঙ্গত, পুরভোটের প্রস্তুতি শুরু করতে দলের কাউন্সিলর ও সাংগঠনিক পদাধিকারীদের বৈঠকে ডেকেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামী ২ মার্চ নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে এই বৈঠক হবে৷ সেখানে কর্পোরেশন ও পুরসভার কাউন্সিলর চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, ব্লক ও ওয়ার্ড স্তরের দলীয় নেতাদের ডাকা হয়েছে। পরেরদিনই অর্থাৎ ৩ মার্চ তৃণমূল ভবনে বৈঠক করবেন দলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সী, মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

এপ্রিল মাসেই কলকাতা সহ গোটা রাজ্যের পুরভোট শুরু করে দিতে চাইছে রাজ্য সরকার। সেই মতো প্রস্তুতিও শুরু করে দিচ্ছে তৃণমূল। রাজ্যে শতাধিক পুরসভায় ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোরের টিম তৃণমূলের জনপ্রতিনিধিদের পারফর্ম্যান্সের মূল্যায়ন করেছে। পুরপ্রতিনিধিদের কাজকর্ম নিয়ে এই মূল্যায়ন রিপোর্ট তৃণমূল নেতৃত্বর কাছে জমা পড়েছে।

প্রশান্ত কিশোরের এই মূল্যায়ন রিপোর্টের ভিত্তিতে মমতা তাঁর অভিমত নেতাজি ইন্ডোরের সভায় ব্যক্ত করবেন। ২ তারিখ নেতাজি ইন্ডোরের এই বৈঠকে পুরসভা এবং পুর-রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত সকলকে সেই প্রস্তুতির অভিমুখ জানিয়ে দেবেন মমতা। কিন্তু এর আগেই বিজেকে টেক্কা দিতে ভোটের ময়দানে নেমে পড়লেন নেতা-কর্মীরা।