বাঁকুড়াঃ হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস সত্যি করে মঙ্গলবার বিকেলে বজ্র বিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি হল দক্ষিণ বাঁকুড়ার বিভিন্ন অংশে। এই এলাকার তালডাংরা, সিমলাপাল, ইন্দপুর, হীড়বাঁধ ব্লক এলাকায় বজ্র বিদ্যুৎ সহ হালকা থেকে মাঝারি ধরণের বৃষ্টিপাত হয়েছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। হঠাত বৃষ্টির জেরে কিছুটা হলেও কমে গিয়েছে জেলার তাপমাত্রা। অন্যদিকে দক্ষিণবঙ্গেও বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে, কলকাতাতেও এদিন ভারী বৃষ্টিপাত হয়েছে। ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে প্রবল বৃষ্টি হয়েছে কলকাতা এবং তার সংলগ্ন এলাকায়। প্রায় ঘন্টাখানেক ধরে চলে এই দুর্যোগ। যার জেরে শহরের বিভিন্ন রাস্তায় জল কিছুটা দাঁড়িয়ে যায়। ফলে গাড়ির গতিও কিছুটা স্লথ হয়ে যায়। অন্যদিকে, প্রবল বৃষ্টিপাতের কারণে নিকো পার্কের কাছে একটি গাড়ির উপর ভেঙে পড়ে গাছ। যার ফলে তীব্র যানজটের পরিস্থিতি তৈরি হয়।

কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় বিক্ষিপ্ত ভাবে বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। মূলত মুর্শিদাবাদ, নদিয়া, বর্ধমান, হুগলি, কলকাতা এবং দুই ২৪ পরগনাতেই বৃষ্টি হতে পারে। এর মধ্যে কোথাও কোথাও আবার বজ্রবিদ্যুত্-সহ বৃষ্টিও হতে পারে, জানিয়েছে আলিপুর। তবে এই পরিস্থিতি তৈরি হতে ৪৮ ঘন্টা সময় লাগবে বলেই জানাচ্ছে আলিপুর আবহাওয়াদফতর।

বীরভূম, মুর্শিদাবাদ এবং নদীয়ায় বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন হাওয়া অফিস। মাঝারি ঠীক ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে বলেই জানা গিয়েছে। উত্তরবঙ্গের একাধিক জায়গায় বৃষ্টি হয়েছে। ঝড়ো হাওয়া সঙ্গে শিলা বৃষ্টি হয়েছে উত্তরের বিভিন্ন জায়গায়। শিলাবৃষ্টির কারণে বরফের চাদরে মুড়ে গিয়েছে দার্জিলিং শহর। বৃষ্টি হয়েছে জলপাইগুড়ি; কোচবিহার; কালিম্পঙ; ও আলিপুরদুয়ারেও।