বাঁকুড়াঃ ‘একতাই বল’ স্লোগানকে সামনে রেখে বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরে রাম নবমী উপলক্ষ্যে ধর্মীয় শোভাযাত্রা করলো বজরং দল। শনিবার এই সংগঠনের উদ্যোগে বিষ্ণুপুর স্টেশান সংলগ্ন হনুমান মন্দিরে এই শোভাযাত্রা হয়ে চকবাজার, স্ট্যাচু ঘুরে রাস মঞ্চে শেষ হয়।

এদিনের এই শোভাযাত্রায় ১৫ হাজারেরও বেশী মানুষ অংশ নিয়েছিলেন বলে আয়োজকদের পক্ষ থেকে দাবী করা হয়েছে। এই অনুষ্ঠানের উদ্দেশ্য নিয়ে বজরং দলের পক্ষ থেকে নীরজ কুমার আরও জানানো হয়েছে, সব হিন্দু ধর্মাবলম্বী মানুষকে একত্রিত করতেই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তবে এর পিছনে কোন রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নেই বলে বজরং দল পরিস্কারভাবে জানিয়েছে।

অন্যদিকে শুধু বাঁকুড়াতেই নয়, গোটা জেলাতেই সাড়ম্বরে পালিত হচ্ছে রামনবমী। প্রসঙ্গত, শেষ কয়েক বছরে রাম নবমী নিয়ে উৎসাহ দেখা গিয়েছে রাজ্যের এক বড় অংশের মানুষের মধ্যে৷ রাম নবমীতে অস্ত্র মিছিল করা নিয়ে বিতর্কও তৈরি হয়েছে শেষ কয়েক বছরে৷ সম্প্রতি সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের কারণে রাজ্যে নির্বাচন বিধি জারী রয়েছে৷ এসব-কে পাত্তা না দিয়েই আজ শনিবার খড়গপুরে রামনবমী পালন করতে গিয়ে হাতে তলোয়ার এবং গদা তুলে নিয়েছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি৷

নির্বাচন বিধি চলাকালীন হাতে সংবাদমাধ্যমের সামনেই হাতে অস্ত্র নিয়ে রামনবমী পালনের ব্যাপারে দিলীপ বাবুকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘‘ অস্ত্র শক্তির প্রতিক৷ যুগে যুগে আমাদের পূর্বপুরুষরা হাতে অস্ত্র তুলে নিয়ে নিয়েছেন ন্যায় প্রতিষ্ঠার জন্য ৷ মানুষকে রক্ষা করার জন্য৷’’ এরপরই হিন্দু সাহিত্যের পবিত্র গ্রন্থ গীতার ‘জ্ঞানযোগে’র আট নং শ্লোক উদ্ধৃত করে বিজেপির রাজ্য সভাপতি বলেন, ‘‘ পরিত্রানায় সাধুনাম, বিনাশায় চ দুষ্কৃতাম’’ অর্থাৎ সাধু বা মহৎ ব্যক্তিদের রক্ষা করার জন্য এবং দুষ্কৃতিদের বিনাশ করার জন্যই হাতে অস্ত্র নিয়েছেন তিনি৷