নয়াদিল্লি: নিজেদের বাজাজ প্লাটিনা 100 এর নতুন সংস্করণ বাজারে আনল বাজাজ অটো। ১০২ সিসি’র এই বাইকে থাকছে ইলেকট্রিক স্টার্টের সুবিধাও। সংস্থার তরফে এর দাম ঠিক করা হয়েছে ৫৩ হাজার ৯২০ টাকা।

চালকের সুবিধার জন্য এই বাইকে উন্নত স্প্রিং প্রযুক্তি দেওয়া রয়েছে। এতে শুধুমাত্র বাইক চালক না, পিছনের সিটে বসে থাকা লোকটির জন্যও আরামের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়া এই বাইকে থাকছে টিউবলেস টায়ার। যা একদিকে রোড সেফটি নিশ্চিত করে আবার ঝঞ্ঝাট মুক্ত রাইডের নিশ্চয়তা দেয়।

আরও খবর পড়ুন – ইঞ্জেকশান আর নয়, পরের সপ্তাহে ট্রায়াল শুরু ন্যাসাল করোনা টিকার

কোম্পানির তরফে এই বাইকে দেওয়া হয়েছে DRL হেডল্যাম্পস এবং একই সঙ্গে ভালো গ্রিপের জন্য দেওয়া হয়েছে রাবারের ফুটপ্যাড। কোম্পানির দাবি, এক লিটার পেট্রোলে এটি চলবে ৭৫ থেকে ৯০ কিমি।

বাজাজ প্লাটিনা 100 তে রয়েছে ১০২ সিসি ইঞ্জিন, ৪-স্ট্রোক, সিঙ্গল সিলিন্ডার, ডিটিএস-আই ইঞ্জিন। ইঞ্জিনটি 7500 আরপিএম এ 7.9 পিএস পাওয়ার এবং 5500 আরপিএম এ 8.3 এনএম টর্ক উত্পাদন করতে সক্ষম।

বাজাজ প্লাটিনা 100 এর ইএস ড্রাম (ES DRUM) এর দিল্লিতে শোরুমে দাম ৫৯ হাজার ৮৫৯ টাকা। প্লাটিনা ১০০ ইএস ডিআইএসসি (ES DISC) এর দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ৬৩ হাজাr ৫৭৮ টাকা। অন্যদিকে প্লাটিনা 100 KS এর দাম ৫২ হাজার ৯১৫ টাকা।

আরও পড়ুন – মোদীর সফরের আগের দিন পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে অভিযান সংযুক্ত মোর্চার

বাজাজ অটো সংস্থাটির প্রধান নারায়ণন সুধারমণ জানিয়েছেন, উন্নত ও নিশ্চিন্ত রাইডের ক্ষেত্রে প্লাটিনা অপ্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে উঠেছে, এর প্রচুর সন্তুষ্ট গ্রাহকেরাই তাঁর প্রমাণ।

উল্লেখ্য, করোনা পরবর্তী সময়ে দেশে লাফিয়ে বেড়েছে দু চাকার চাহিদা। অফিস যাত্রী থেকে শুরু করে সকলেই ঝুঁকছে বাইক-স্কুটির দিকে। এই প্রবণতা লক্ষ্য করেই আসরে নেমে পড়েছে সমস্ত অটো সংস্থা। তাঁরা সামনে আনছে একের পর এক মডেল। আর তা দিয়েই মাত দিচ্ছে গ্রাহকদের।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।