নিউজ ডেস্ক, কলকাতা: আমার জন্য শোভন চট্টোপাধ্যায় সব ছেড়েছেন৷ ফলে তাঁর সব রকম পদক্ষেপে আমার সমর্থন রয়েছে৷ বুধবার নয়াদিল্লি গিয়ে বিজেপির সদর দফতরে যোগদান করে এমনই প্রতিক্রিয়া শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের৷ তাঁর কথায় তৃণমূলে থাকাকালীন শিক্ষক সংগঠনে একটা জায়গা ছিল৷ পরে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতাকে অপরাধ প্রমাণিত করার জন্য তাঁকে সেই জায়গা থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়৷

বৈশাখী বলেন বিজেপিতে যোগ দিয়ে যদি কোনও দায়িত্ব তিনি পান, অবশ্যই সেই দায়িত্ব পালন করবেন তিনি৷ শিক্ষক সংগঠনের অনেকেই নাকি তাঁর এই রাজনৈতিক পালাবদলকে সমর্থন করেছেন বলে দাবি বৈশাখীর৷

এর আগে, গত বুধবার শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে হেনস্থার অভিযোগ তুলে মিল্লি আল আমিন কলেজের অধ্যক্ষার পদ থেকে ইস্তফা দিতে চেয়েছিলেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। বলেছিলেন, কলেজের শিক্ষিকা শাবিনা ওমর তাঁর বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় যে পোস্ট করছেন, তা পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মদতেই হচ্ছে। এই ‘অসম’ লড়াই তিনি আর লড়তে পারছেন না। অভিযোগগুলি করার পরই হাউ হাউ করে কেঁদে ফেলেছিলেন বৈশাখী।

আরও পড়ুন: দেবশ্রী থাকলে বিজেপিতে যোগ দেব না: শোভন

কিন্তু বৃহস্পতিবার শিক্ষামন্ত্রীর সম্পর্কে অনেকটা নরম সুর শোনা গিয়েছিল। তিনি জানিয়েছিলেন, পার্থ চট্টোপাধ্যায় তাঁকে ইস্তফা দিতে বারণ করেছেন এবং তিনি আশ্বস্ত করেছেন নিজে বিষয়টি দেখবেন বলে।শুক্রবার বৈশাখী জানান, এদিন সকালে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁর ফোনে কথা হয়েছে। তারপরেই তিনি সিদ্ধান্ত নেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে গিয়ে কলেজের এক শিক্ষিকার বিরুদ্ধে তাঁর যাবতীয় অভিযোগ জানিয়ে তদন্ত দাবি করবেন। এবং নিজের পদত্যাগপত্রও জমা দেবেন।

বুধবার বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরে বৈশাখী জানান, কেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা বলার পরেও কোন সমাধান সূত্র বেরল না, তার কারণ অজানা৷ তবে তিনি আশা করেন বিজেপি যোগ দিলেও শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে পাশে পাবেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে৷