স্টাফ রিপোর্টার, লাটাগুড়ি: নিসর্গ প্রকৃতির কারণে অবকাশ পেলেই ডুয়ার্সে ছুটে আসেন বাংলার পর্যটকরা। ডুয়ার্সের লাটাগুড়ি, গরুমারা সারা ভারতের পর্যটনে এখন সুপরিচিত। সম্প্রতি বেহাল রাস্তার কারণে এইসব এলাকার পর্যটন ব্যবসা মার খাচ্ছে বলে কেউ কেউ অভিযোগ তুলেছেন। রাস্তার ফাটল, জল জমে থাকা ইত্যাদি পর্যটকদের অসুবিদের কারণ। তার জেরে এবার পুজোয় পর্যটনে ভাঁটার সম্ভাবনাও রয়েছে।

এই মুহূর্তে শিলিগুড়ি থেকে লাটাগুড়ি ও গরুমারা যাওয়ার রাস্তা অত্যন্ত খারাপ। রাস্তা মেরামতি হয়নি বহুদিন। এর আগে পর্যটন দফতরের পক্ষ থেকে রাস্তা মেরামত করার কথা বলা হলেও ফল হয়নি। সম্প্রতি পর্যটন দফতর জানিয়েছে, পুজোর আগেই রাস্তার কাজ শুরু হবে। তবে এখনও কাজ শুরু না হওয়ায় এবারের পুজোয় পর্যটকদের আগমন নিয়ে বেশ চিন্তিত স্থানীয় পর্যটন ব্যবসায়ীরা।

পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব বলেন, “পুজোর আগেই রাস্তা ঠিক করা হবে।” শিলিগুড়ি থেকে ক্যানেল রোডে লাটাগুড়ির দূরত্ব মাত্র ৪৭ কিলোমিটার। খারাপ রাস্তার কারণে ময়নাগুড়ি হয়ে শিলিগুড়ি যেতে ৮৭ কিলোমিটার পেরতে হয়। সেই রাস্তার অবস্থাও ভালো নয়। গাড়ির চালকরা অভিযোগ তুলেছেন, রাস্তায় বড় বড় গর্ত থাকার কারণে গাড়ির যন্ত্রপাতি মাঝে মধ্যেই বিকল হয়ে যায়। পুজোর মুখে রাস্তার এই বেহাল দশায় বেশ চিন্তিত এলাকার সাধারণ মানুষও। তাদের কথায় পর্যটক না এলে তারা উপার্জন হারাবেন। পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেবের দেওয়া আশ্বাস কতটা কাজে লাগে সেটাই এখন দেখার।