ওসব নিয়ম মেনে সকাল-সন্ধ্যা চা আপনার ধাতে নেই! চায়ের ক্ষেত্রে আপনি নিশ্চয়ই বেহিসাবী৷ কাজের ফাঁকে সুযোগ পেলেই টুক করে এক কাপ মেরে দেন৷ বন্ধুরা আপনার নামখানাও বেমালুম বদলে ‘চাতাল’ রেখে দিয়েছে৷ আপনি ভাবেন চা-এই আপনার এনার্জির মূলমন্ত্র লুকিয়ে৷ কিন্তু জানেন দিনভর কাপের পর কাপ চা আপনার কী সর্বনাশ করছে?

একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে, অতিরিক্ত চা পান আমাদের শরীরের হাঁড় দুর্বল করে দেয়৷ এই সমস্যা সবথেকে বেশি হয় যারা টি-ব্যাগ ব্যবহার করেন৷ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, টি ব্যাগে অতিরিক্ত ফ্লুরাইড থাকে৷ যা আমাদের দাঁত ও হাঁড়ের জন্য ক্ষতিকর৷ অতিরিক্ত ফ্লুরাইড শরীরে গেলে তা দাঁতের সর্বনাশ ডেকে আনে৷ দাঁতের উপরের অংশে বিশেষ ক্ষতি করে৷

তবে গুড়ো বা পাতা চা থেকেও কিন্তু এই সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা থেকেই যায়৷ বিশেষ করে সস্তার চা পাতা থেকে এই সমস্যা হতে পারে৷ কারণ এতে বেশি পরিমাণে ফ্লুরাইড থাকে৷ কখনও কখনও তা ছ’গুণ পর্যন্ত বেশি মাত্রা হতে পারে৷ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বছরকার পুরনো চা পাতাকেই কম দামে বিক্রি করা হয়৷ তাতে মিনারেলের পরিমাণও বেশি হয়৷ যা ধীরে ধীরে আমাদের হাঁড় দুর্বল করতে শুরু করে৷

তাই বিশেষজ্ঞরা বলছেন অতিরিক্ত চা না পান করতে৷ বিশেষ করে টি-ব্যাগ ব্যবহার ও সস্তার চা কেনার সময় আরও বেশি সচেতন হওয়া দরকার৷ কেন না বেশি ফ্লুরাইড শরীরে প্রবেশ করলে স্কেলিটাল ফ্লুওরোসিস পর্যন্ত হতে পারে৷ এটি এক ধরনের হাঁড়ের অসুখ৷ যা ক্রমেই আপনাকে কাবু করে ফেলবে৷ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) বলছে আমাদের শরীরে ছয় মিলিগ্রাম অবধি ফ্লুরাইড দরকার৷ এর থেকে বেশি মাত্রায় ফ্লুরাইড শরীরে গেলে স্কেলিটাল ফ্লুওরোসিস হওয়ার সম্ভাবনা বাড়তে থাকে৷ হিসাব করে দেখা গিয়েছে দিনে চার কাপ চা শরীরের জন্য ঠিকঠাক৷ কিন্তু এর বেশি হলে তা বড় ক্ষতির মুখে ফেলতে পারে আমাদের৷