নয়াদিল্লি: অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী তথা তেলেগু দেশম নেতা চন্দ্রবাবু নাইডু ফের লখনউ থেকে ফিরে আজ দেখা করবেন রাহুলের সঙ্গে৷ কারণ বিজেপি বিরোধী নেতাদের সঙ্গে তাঁর বৈঠক ধারাবাহিক ভাবেই চলছে৷

এই বিরোধী ফ্রন্ট গড়ার লক্ষ্যে শনিবার রাহুল গান্ধীর সঙ্গে বৈঠক করার পর লখনউ উড়ে যান মায়াবতী ও অখিলশের সঙ্গেও দেখা করতে৷৭০ মিনিট বৈঠক করার পর অখিলেশ টুইট করে জানিয়েছেন, আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি চন্দ্রবাবু নাইডুকে লখনউতে স্বাগত৷ চন্দ্রবাবু নাইডু অখিলেশ এবং মায়াবতী উভয়কে বাক্সে ভরা আম উপহার দেন৷ তবে অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী তাদের বৈঠকের ব্যাপারে সংবাদ মাধ্যমকে কিছু জানাননি৷

২০১৯ সালে নির্বাচন মিটতেই বিরোধীদের একত্র করার উদ্দেশ্যে শুক্রবার দিল্লিতে এসেছেন নাইডু৷ তারপরেই তিনি দেখা করেন এনসিপি নেতা শরদ পওয়ার, লোকতান্ত্রিক জনতা দলের নেতা শরদ যাদব এবং সিপিআই নেতাদের সঙ্গে৷

শনিবার চন্দ্রবাবু নাইডু কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর সঙ্গে দেখা করে আলোচনা করেন ২৩মে নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর বিজেপিকে ক্ষমতা থেকে সরাতে বিরোধী ফ্রন্ট গড়ার ব্যাপারে৷ পাশাপাশি তিনি ওই দিন দেখা করেছেন সিপিআই নেতা সুধাকর রেড্ডি এবং ডি রাজার সঙ্গে গতকাল চন্দ্রবাবু নাইডু- রাহুল গান্ধীর ঘন্টা খানেকের বৈঠক যেমন বিজেপি বিরোধী দলগুলিকে ঐক্যবদ্ধ করার কথা বলা হয়েছে তেমনই আবার সংখ্যা গরিষ্ঠতা কম থাকা বিজেপি যাতে সরকারের গড়ার জন্য অন্য দলগুলিকে ভাঙাতে না পারে তার জন্য কৌশলগত দিক থেকে তৈরি থাকার কথাও বলা হয়৷

ইউপিএ চেয়ারপার্সন সোনিয়া গান্ধী দিল্লিতে সমস্ত বিরোধী দলের নেতা নেত্রীদের ২৩মে নির্বাচনের ফল প্রকাশের পরে বৈঠকের জন্য ডেকেছেন , তার ঠিক পরের দিনই চন্দ্রবাবু নাইডু- রাহুল গান্ধীর বৈঠক হয়েছে এবং ফের তাঁরা রবিরার বৈঠক করবেন – যা সব মিলিয়ে অন্য মাত্রা দিচ্ছে৷

নাইডু জানিয়েছেন, বিরোধী সব দবলের জন্যেই দরজা খোলা রয়েছে এমন কী টিআরএসএর সঙ্গেও৷ যদিও টিআরএস প্রধান তথা তেলেঙ্গনার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও বিজেপি বিরোধী কংগ্রেসে বিরোধী তৃতীয় ফ্রন্ট গড়ার কথা বলেছেন৷ ইয়েদুরি এবং কেজরিওয়ালের সঙ্গে ২৩মে পর জোট গড়া সম্ভাবনার কথা আলোচনা করেছেন৷