কলকাতা: কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়’র নিশানাতে আবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়। এর আগে গত বছরে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে তাঁর প্রবেশ নিয়ে রীতিমত সরগরম হয়ে উঠেছিল বিশ্ববিদ্যালয় চত্বর। তারপরে আবারও রাজ্যের অন্যতম এই বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের ‘অসভ্য’ বলে আক্রমণ করলেন তিনি।

কেবলমাত্র যাদবপুরের পড়ুয়াদেরই নয়, তিনি আক্রমণ করেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও। জানিয়েছেন যাদবপুরের বিক্ষোভের নেতৃত্বের দায়িত্বে রয়েছেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী।

গেরুয়া শিবিরের আক্রমণের তালিকাতে বারবার উঠে এসেছে দিল্লির জেএনইউ। একইভাবে এই রাজ্যর যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়কে নিশানা করেছেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী। বলেছেন, যাদবপুরের পড়ুয়ারা সভ্যতা জানে না। তারা এই বিশ্ববিদ্যালয়ের মান নষ্ট করছে। আর সকল কিছুর জন্য তিনি দায়ী করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। জানিয়েছেন যাদবপুরে যে বিক্ষোভ চলছে তার নেতৃত্বে রয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিকে যাদবপুর নিয়ে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীর এহেন মন্তব্যের পরে সমালোচনা করেছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। জানিয়েছেন যাদবপুরের ছলেরা ভাল না খারাপ তা বিচার করার মাপকাঠি তাঁদের মেধা। রাজ্যের অন্যতম প্রথিতযশা বিশ্ববিদ্যালয় হল যাদবপুর। কেন্দ্রীয় সরকারের একাধিক নীতির বিরুদ্ধে বারবার পথে নেমেছেন এই বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা। সেই কারণে বাবুল সুপ্রিয় এ হেন মন্তব্য করেছেন কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

রাজ্যর বিভিন্ন জায়গাতেই সিএএ-এনআরসি নিয় চলছে বিক্ষোভ। তাতে অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে পা মিলিয়েছেন যাদবপুরের পড়ুয়ারাও। তাই কি কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীর আক্রমণের শিকার এই বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা। এহেন প্রশ্ন ঘুরছে বিশেষজ্ঞ মহলে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ