স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: গোমূত্র বিতর্কে এবার রাজ্য বিজেপির অন্দরের কোন্দল প্রকাশ্যে এল। দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ গোমূত্র পানকে সমর্থনে জানালেও এর বিরোধিতা করলেন বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। শুধু তাই নয়, কটাক্ষ করে বললেন, ‘গেরুয়া মানেই বিজেপি নয়’।

করোনা রুখতে জোড়াসাঁকোর বিজেপি নেতা নারায়ণ চট্টোপাধ্যায়ের আয়োজনে গোমূত্র পানের বন্দোবস্ত হয়েছিল সোমবার। তা নিয়ে বিতর্ক তৈরি হতেই রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছিলেন, ‘‘হিন্দুর বাড়িতে যখন সত্যনারায়ণের সিন্নি দেওয়া হয়, তখন পঞ্চগব্য লাগে। তার মধ্যে গোমূত্রও থাকে। হিন্দুদের আরও নানা আচার-অনুষ্ঠানে গোমূত্র ব্যবহার করা হয়। আজ নয়, হাজার হাজার বছর ধরে এটা হয়ে আসছে।’’ গোমূত্র পানে কোনও ক্ষতি হয় না বলে দাবি করে দিলীপ প্রশ্ন তুলেছিলেন, ‘‘এটা কে বলল যে, গোমূত্র খেলে ক্ষতি হয়? হাজার হাজার বছরের পরম্পরা। কার ক্ষতি হয়েছে? গোমূত্র খেয়ে কে অসুস্থ হয়েছেন? ক’জনকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছে?’’ দিলীপের ব্যাখ্যা, ‘‘রোজ কত মানুষ গোমূত্র কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। কোটি কোটি টাকার ব্যবসা হচ্ছে। এমনি এমনি তো হচ্ছে না।’’

বুধবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় একটি ভিডিও টুইট করেছে। বাবুল নিজের গাওয়া একটা বলিউডি গানের দুটো লাইন তুলে ধরেছিলেন সেই ভিডিয়োতে। জনপ্রিয় রোম্যান্টিক গানটায় পরস্পরের কাছাকাছি আসার কথা বলা হলেও আপাতত কারও ও সব করার দরকার নেই, সংক্রমণ এড়াতে দূরত্ব বজায় রাখা দরকার— এই রকম বার্তাই ১ মিনিট ২৫ সেকেন্ডের ভিডিয়োটিতে দিয়েছিলেন আসানসোলের বিজেপি সাংসদ।

বাবুলের সেই টুইটে কমেন্ট করে এক ব্যক্তি ‘গোমূত্র’ কটাক্ষ ছোড়েন। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর উদ্দেশে তিনি লেখেন, ‘‘গোমূত্র পান করুন বন্ধু! শক্তিশালী থাকুন।’’ বৃহস্পতিবার সেই মন্তব্যেরই জবাব দিয়েছেন বাবুল সুপ্রিয়। দিল্লিতে হিন্দু মহাসভা আয়োজিত ‘গোমূত্র পার্টি’ হোক বা কলকাতায় বিজেপি নেতার উদ্যোগে গোমূত্র পান করানোর বন্দোবস্ত, কোনওটাতেই যে তাঁর সমর্থন নেই, মন্ত্রী সে বার্তাই দেওয়ার চেষ্টা করেছেন।

টুইটে বাবুল সুপ্রিয় লিখেছেন, ‘‘আমি ওটা করি না ভাই। যাঁরা ওটা করেন বা সমর্থন করেন, তাঁরা নিজেদের ‘ব্যক্তিগত’ বিশ্বাস থেকে করেন।’’ এতেই থামেননি মন্ত্রী। তিনি লিখেছেন, ‘‘এ কথা ঠিক যে, কেউ কেউ গেরুয়া পরে এটা করেছেন। কিন্তু গেরুয়া মানেই বিজেপি নয়।’’

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ‘বাস্তবসম্মত ভাবে এবং বিজ্ঞানসম্মত ভাবে’ করোনার মোকাবিলার চেষ্টা করছেন এবং ‘সামনে দাঁড়িয়ে’ একজন আন্তর্জাতিক নেতার মতো সেই অভিযানে নেতৃত্ব দিচ্ছেন— টুইটারে এমনও লিখেছেন বাবুল সুপ্রিয়।

তবে শুধু বাবুল নয়, রাজ্য বিজেপির একাধিক নেতা-নেত্রী যেমন-সায়ন্তন বসু, লকেট চট্টোপাধ্যায়ও করোনা রুখতে গোমূত্র পানকে সমর্থন জানাননি।