নয়াদিল্লি:  আজ বুধবারই শেষ হচ্ছে রামমন্দির মামলার শুনানি। দীর্ঘদিন ধরে এই মামলার শুনানি চলে। কিন্তু এদিনই মামলার চূড়ান্ত শুনানি শেষ করা হবে। এমনটাই জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। শোনা যাচ্ছে, আগামী ১৭ নভেম্বর এই মামলার চূড়ান্ত রায় জানাতে পারে সুপ্রিম কোর্ট।

ফলে এদিন মামলার চূড়ান্ত শুনানি শেষে রায় দান স্থগিত রাখতে পারে দেশের সর্বোচ্চ আদালত। উল্লেখ্য, অযোধ্যা মামলায় শুনানির আজ বুধবার ৪০ তম দিন। প্রধান বিচারপতির মন্তব্য অনুযায়ী, টানা ৪০ দিন শুনানি শেষে আজই শেষ হচ্ছে মামলার শুনানি।

শুনানিতে রামজন্মভূমির পক্ষে সওয়াল করতে ওঠেন প্রবীণ আইনজীবী কে পরাসরণ। সওয়ালে তিনি জানান, শতাব্দি ধরে রামের এই জন্মস্থানটিকে নিয়ে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে হিন্দুরা। মুসলিমরা যে কোনও মসজিদে প্রার্থণা করতে পারে। অযোধ্যায় ৫০-৬০টি মসজিদ রয়েছে। মুসলিমদের জন্য সব মসজিদই সমান গুরুত্হপূর্ণ। কিন্তু এই বিশেষ জায়গাটি রামের জন্মস্থান। কারও জন্মস্থান বদল করা যায় না বলে মন্তব্য করেন প্রবীণ এই আইনজীবী। শুনানিতে সুপ্রিম কোর্ট হিন্দু মহাসভার একটি আবেদন বাতিল করে দেয়। এরপরেই প্রধান বিচারপতি কারজ্য ক্ষুব্ধ হয়েই বলেন, ইনাফ ইস ইনাফ। আজ পাঁচটাতেই শেষ হবে অযোধ্যা মামলার শুনানি। এদিন বাবরি মসজিদের পক্ষে আইনজীবী বলেন, ১৯৮৯ পর্যন্ত রামজন্মভূমির জমির দাবি হিন্দুরা করেনি।

অন্যদিকে, মনে করা হচ্ছে নভেম্বরেই অযোধ্যা মামলার চূড়ান্ত রায় জানাতে পারে সুপ্রিম কোর্ট। ১৭ নভেম্বরই হয়তো এই মামলার রায় ঘোষণা হবে। আর তা সামনে রেখেই অযোধ্যা জুড়ে বাড়ানো হচ্ছে নিরাপত্তা। ইতিমধ্যে সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। যে কোনও ধরনের অশান্তি এড়াতে বিশাল পুলিশ ফোর্সকে নিয়োগ করা হয়েছে। উত্তরপ্রদেশ সরকার আগে থেকেই অযোধ্যাতে চার বা ততোধিক লোকের যে কোনও জমায়েতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।