নিজের ভুঁড়ি নিয়ে কি আপনি বেশি মাথা ঘামান না? তাহলে এবার একটু সতর্ক হন। কারণ এখনই  ব্যবস্থা না নিতে পারলে ভবিষ্যতে বহু সমস্যার শিকার হতে পারেন আপনি। সাম্প্রতিক গবেষণা থেকে জানা গিয়েছে যে, সাধারণত  যে সমস্ত মাঝবয়সী মানুষদের বেশি ভুঁড়ি বেড়ে গেলে ভবিষ্যতে তাদের অন্যান্য মানুষদের থেকে ৩.৬ গুণ বেশি স্মৃতিশক্তি কমে যাওয়ার প্রবণতা দেখা যায়।

রাশিয়া বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিক্যাল সেন্টার ন্যাশনাল ইন্সটিটিউটের যৌথ একটি গবেষণা থেকে এই তথ্য পাওয়া গিয়েছে। গবেষণা থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, যে প্রোটিনটি ফ্যাট বিপাকের সঙ্গে যুক্ত থাকে সেই একই প্রোটিন মস্তিষ্কের স্মৃতি ও শিক্ষা গ্রহণের ক্ষমতা নিয়ন্ত্রণ করে। যকৃতের মধ্যে শরীরের সবথেকে বেশি ফ্যাট বিপাক হয় এবং পেরক্সিমোস প্রলিফেরাটর অ্যাকটিভেটেড রিসেপটর আলফা (পিপিএআর আলফা) প্রোটিনটি যকৃতে ফ্যাট বিপাকের কার্যকে নিয়ন্ত্রণ করে।

যেহেতু পিপিএআর আলফা সরাসরি ফ্যাট বিপাকের সঙ্গে যুক্ত, তাই বৃহৎ ভুঁড়ি যুক্ত ব্যক্তিদের যকৃতে পিপিএআর আলফার পরিমাণ কমতে থাকে। যারফলে ফ্যাট বিপাক অনিয়ন্ত্রিত হয়ে পড়ে। প্রাথমিকভাবে যকৃতে পিপিএআর আলফার পরিমাণ কমতে থাকে এবং পরবর্তী কালে শরীরের অন্যান্য অংশ থেকেও এই প্রোটিনের পরিমান কমে যায়। যারফলে মস্তিষ্কেও এর প্রভাব পড়ে এবং স্মৃতি শক্তি কমে যেতে থাকে।

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব