ঢাকা: এবারের সিটি নির্বাচনে শাসক দলের সমর্থিত কর্তাদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ আনলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তাঁর মতে নির্বাচন কমিশনের কর্তরা মন্ত্রীদের কাছ থেকে সুযোগ সুবিধা প্রাপ্ত। তাই তারা নির্বাচনে পক্ষপাত করবেন। তিনি আরও বলেন, নির্বাচন কমিশনের কর্তরা গাড়ির কাগজ করার জন্য মন্ত্রীদের কাছে যান। স্কুল করার জন্য মন্ত্রীর সহযগিতা নেন।

সরস্বতী পুজোর দিন নির্বাচন হবে কিনা সেই নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়িয়েছিল। নির্বাচন পিছানোর আবেদন খারিজ করে দেয় হাইকোর্ট। আগামী ৩০ জানুয়ারিই অনুষ্ঠিত হবে ঢাকা সিটি নির্বাচন। সরস্বতী পুজো পড়ে যাওয়ায় নির্বাচন পিছানোর দাবি তুলেছিলেন আইনজীবীরা। মঙ্গলবার সেই আবেদন খারিজ করে দেয় হাইকোর্ট। ঢাকা উত্তর এবং ঢাকা দক্ষিণে সিটি নির্বাচন হবে ৩০ জানুয়ারি।

সিটি করপোরেশন নির্বাচনের আগে জমজমাট ঢাকা। সিটি করপোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে উৎসবে মেতেছে শহর। গত শীতে বাংলাদেশের জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এবারের নির্বাচনে কোন দল ক্ষমতায় আসবে সেদিকেই তাকিয়ে আছে ঢাকার মানুষ। কোন দল ক্ষমতায় আসবে এবং সাধারণ মানুষের জন্য কতটা কাজ করবে সেটাই এখন দেখার।

আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা উৎসবের আমেজ দেখছেন। তুলনায় অন্যরা কিছুটা চুপচাপ। গত বারের নির্বাচনে ছাপ্পা ভোটের অভিযোগ ওঠে শাসক দলের বিরুদ্ধে। ভোটের দিন স্কুলের দরজা বন্ধ করে ভোট কারানোর অভিযোগ আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে। এমন অভিযোগ আনে বিরোধী দল বিএনপি।

এবারের নির্বাচনে ঢাকা দক্ষিণ সিটি থেকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন শেখ হাসিনার আওয়ামী লীগের চারজন প্রার্থী। ইতিমধ্যেই ওই চার প্রার্থীকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী বলে ঘোষণা করেছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। চারজনের মধ্যে আছেন ২৫ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ডের মো. আনোয়ার ইকবাল, ৪৩ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ডের মো. আরিফ হোসেন, সংরক্ষিত ৬ নম্বর ওয়ার্ডের নারগীস মাহতাব এবং সংরক্ষিত ৮ নম্বর ওয়ার্ডের নিলুফার রহমান।