কলকাতা: সৌরভ বিসিসিআই সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর তাঁর ছেড়ে যাওয়া সিএবি প্রেসিডেন্টের পদে অভিষেক ডালমিয়ার আসীন হওয়া আগেই নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল৷ সভাপতি পদে অভিষেক ছাড়া আর কেউ মনোনয়ন জমা না দেওয়ায় তাঁর বাংলা ক্রিকেটের মসনদে বসা কেবল সময়ের অপেক্ষা ছিল৷ বুধবার সিএবি’র বিশেষ সাধারণ সভায় সরকারি সিলমোহর পড়ল অভিষেকের সিএবি প্রেসিডেন্টের পদে৷ বাংলার ক্রিকেট সংস্থার কণিষ্ঠ সভাপতি হিসেবে দায়ভার গ্রহণ করলেন ডালমিয়া৷

একই সঙ্গে অভিষেক ডালমিয়ার ছেড়ে যাওয়া সিএবি সচিবের পদে দায়িত্ব গ্রহণ করলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের দাদা স্নেহাশীষ৷ তিনিও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সেক্রেটারি নির্বাচিত হন৷

আরও পড়ুন: ম্যাচ হেরে বড় শাস্তির মুখে টিম ইন্ডিয়া

সভাপতি পদে অভিষেক ডালমিয়া অবশ্য খুব বেশিদিন থাকতে পারবেন না৷ লোধা কমিটির প্রস্তাব মতো ২০২১ সালের ৬ নভেম্বর গদি ছাড়তে হবে জুনিয়র ডালমিয়াকে৷ তার পরেই কুলিং-অফ পিরিয়ডে যেতে হবে তাঁকে৷ সুতরাং বাবা জগমোহন ডালমিয়ার ছেড়ে যাওয়া চেয়ারে অভিষেকের মেয়াদ আপাতত ২২ মাসের৷ অভিষেক সিএবি’র ১৮তম সভাপতি হিসেবে কাজ শুরু করলেন৷

অভিষেক সিএবি সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণের সময় তাঁকে শুভেচ্ছা জানাতে উপস্থিত ছিলেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ৷ সঙ্গে ছিলেল তাঁর কন্যা সানা৷

আরও পড়ুন: ভয়ানক ব্যাটিং বিপর্যয়ে পিছিয়ে পড়ল বাংলা

বাবার চেয়ারে বসার পর রীতিমতো স্মৃতিমেদুর শোনায় অভিষেককে৷ তিনি বলেন, ‘ছেলেবেলা থেকে বাবাকে বলতে শুনেছি ইডেন গার্ডেন্স হল একটা মন্দির৷ এই বার্তাটা আমার সারা জীবনের পাথেয় হবে৷ ইডেন নিয়ে বাবার আবেগ বলে বোঝানো সম্ভব নয়৷ সিএবি’র এই ঘরটায় বসার মুহূর্তে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়া স্বাভাবিক৷’