কলকাতা: আবারও প্রধানমন্ত্রীকে নিশানা করলেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার পেট্রোল-ডিজেলের লাগাতার দাম-বৃদ্ধি নিয়ে সোশাল মিডিয়ায় মোদীকে দুষলেন তৃণমূল সাংসদ। দেশজুড়ে লাগাতার বেড়ে চলেছে পেট্রোল ও ডিজেলের দাম। একইসঙ্গে পেট্রোল-ডিজেলের ওপর করও বাড়িয়ে দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। তা নিয়েই প্রধানমন্ত্রীর কড়া সমালোচনায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও একইসঙ্গে লকডাউনের জেরে দেশের অর্থনীতি ধুঁকছে। বহু মানুষ কাজ হারিয়েছেন। একাধিক প্রতিষ্ঠানে চলছে কর্মী ছাঁটাই। তৃণমূল সাংসদের অভিযোগ, দেশের এই সংকটজনক পরিস্থিতিতেও পেট্রোল-ডিজেলের ওপর বাড়তি কর চাপিয়ে দেশের মানুষকে চরম হয়রানির মুখে ফেলছে মোদী সরকার।

তৃণমূল সাংসদের আরও অভিযোগ, আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমলেও দেশে তেলের দাম বাড়িয়েই চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার।

অভিষেকের তথ্য অনুযায়ী, গত মার্চ মাসে কলকাতায় প্রতি লিটার পেট্রোলের দাম ছিল ৭২.৮৩ টাকা। সেই সময় তেলের ওপর কর নেওয়া হত ১৯.৯৮ টাকা। বর্তমানে সেই করের পরিমাণ বেড়ে হয়েছে ৩২.৯৮ টাকা। একইভাবে ডিজেলের দামও বহুলাংশে বেড়েছে দেশের বাজারে।

দেশের বাজারে পেট্রোল-ডিজেলের এই দাম-বৃদ্ধি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কড়া সমালোচনায় সরব হয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এর আগে সোমবারই গরিব কল্যাণ যোজনা প্রকল্পে বাংলার নাম না থাকায় কেন্দ্রের সমালোচনায় সরব হয়েছিলেন তৃণমূল সাংসদ। প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে সংকীর্ণ রাজনীতি করার অভিযোগ তুলেছিলেন অভিষেক।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ