নয়াদিল্লি: ভারতের যোগাযোগ ব্যবস্থার একটি বড় স্তম্ভ হল রেল৷ জালের মতন এক প্রান্তকে অপর প্রান্তের সঙ্গে যুক্ত করে যোগাযোগকে করছে সহজ৷ আর, সেই রেলব্যবস্থাকেই আরও একধাপ এগিয়ে নিয়ে গেল Train-18৷ অনেকেই হয়ত নামটির সঙ্গে পরিচিত৷ কারণ, বেশ কিছুদিন ধরেই সামনে আসছিল Train-18 নিয়ে নানান খবর৷ ভারতের মাটিতে প্রথমবার চলবে ইঞ্জিনবিহীন এই ট্রেন৷ রেলওয়ে বোর্ড চেয়ারম্যান অশ্বিনী লোহানীর হাত ধরে আত্মপ্রকাশ করেছে এই বিশেষ ট্রেনটি৷

উন্নত প্রযুক্তিসম্পন্ন এই ট্রেনটি ইন্টিগ্রাল কোচ ফ্যাক্টরিতে (আইসিএফ) তৈরি করা হয়েছে৷ ট্রেনটি দৌড়বে ঘন্টায় ১৬০ কিমি বেগে৷ আইসিএফের জেনারেল ম্যানেজার এস. মানি জানাচ্ছেন, শতাব্দী এক্সপ্রেসের জায়গা নিতে পারে Train-18৷ শুধু তাই নয়, যাত্রাপথের সময়কে কমাতে পারে ১৫ শতাংশ পর্যন্ত৷ তথ্য জানাচ্ছে, সাধারণত নতুন কোন ট্রেনের ধারণাকে বাস্তবায়নের জন্য সময় লাগে ৩-৪ বছর পর্যন্ত৷ কিন্তু, এক্ষেত্রে মাত্র ১৮ মাসের মধ্যেই ট্রেনটির সমস্ত কাজ শেষ করা হয়েছে৷ মেড-ইন-ইন্ডিয়া Train-18 ঠিক কী কী ফিচার পেতে চলেছেন যাত্রীরা?

১) Train-18 থাকছে মোট ১৬ টি চেয়ারকার কোচ৷ যেখানে একসঙ্গে মোট ১১২৮ জন যাত্রী যাতাযাত করতে পারবেন৷ সংবাদ মাধ্যমের তথ্য অনুসারে, রেগুলার কোচগুলিতে থাকে ৭৮টি সিট৷ ট্রেনটির দুইদিকের ড্রাইভিং কোচগুলিতে থাকছে ৪৪ টি সিট৷

২) তথ্য জানাচ্ছে, ইঞ্জিনছাড়াই চলবে ট্রেনটি৷ যেটিকে অনেকটা দেখতে হবে বুলেট ট্রেনের মতন৷ যেটির স্পিড থাকছে ঘন্টায় ১৬০ কিমি৷ ট্রেনটিকে ভারতের সবথেকে দ্রুতগামী ট্রেন বললেও ভুল বলা হবে না৷ ফুল-এয়ারকন্ডিশনড এই ট্রেনটিতে যাত্রীদের সুরক্ষার এবং আরামের বিষয়টিকে বেশ ভালই গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে৷ ট্রেনটির লুকও থাকছে বেশ মর্ডান৷

৩) অন্যদিকে, ট্রেনের স্পিড শূন্যতে পৌঁছলে তবেই খুলবে ট্রেনটির দরজাগুলি৷ অন্যদিকে, সমস্ত দরজাগুলি পুরোপুরিভাবে বন্ধ হওয়ার পরই চলতে শুরু করবে ট্রেনটি৷ তাই বলা যায়, দরজা খোলা-বন্ধের বিষয়টি অনেকটা মেট্রোর আদলে তৈরি করা হয়েছে৷

৪) যাত্রী সুরক্ষার দিকটিকে মাথায় রেখেই ড্রাইভারের কেবিনে থাকছে ট্রেন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম৷ যেটি ব্রেক এবং অটোমেটিক দরজাগুলিকে নিয়্ন্ত্রন করবে৷ এছাড়া, কোচগুলিতে থাকছে ওয়াই-ফাই, জিপিএসের সুবিধা৷ সাধারণ কোচগুলির থেকে অনেক বড় থাকছে Train-18 এর লাগেজ ট্রে৷ প্রত্যেকটি কোচেই থাকছে এলইডি স্ক্রিন, স্পিকার সিস্টেম৷

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।