মেলবোর্ন: প্রথম একাদশে একসঙ্গে তিনটি রদবদল করে বক্সিং ডে টেস্টে মাঠে নামছে ভারত৷ কোহলিরা ছেঁটে ফেলেছে দুই ওপেনারকেই৷ বাদ দিয়েছে পেসার উমেশ যাদবকেও৷ ‘ব্র্যান্ড নিউ’ ওপেনিং জুটি নিয়ে মেলবোর্নে খেলতে নামার সিদ্ধান্ত নিয়েছে টিম ইন্ডিয়া৷

এই অবস্থায় তৃতীয় টেস্টের প্রথম একাদশে পরিবর্তন আনল অস্ট্রেলিয়াও৷ অ্যাডিলেড ও পারথে অপরিবর্তিত এগারোজনকে নিয়েই খেলতে নেমেছিল অজিরা৷ অ্যাডিলেডে হারতে হলেও পারথে এসেছে কাঙ্খিত জয়৷ সচরাচর দাপুটে জয় পেলে বেশিরভাগ দলই উইনিং কম্বিনেশন ধরে রাখতে চায়৷ সেদিক থেকে বিচার করলে উল্টো পথে হাঁটতে দেখা গেল অজি টিম ম্যানেজমেন্টকে৷

আরও পড়ুন: দুই ওপেনারকেই ছেঁটে ফেলল ভারত, অভিষেক মায়াঙ্কের

মেলবোর্ন টেস্টের জন্য অস্ট্রেলিয়ার প্রথম একাদশে সুযোগ পেলেন অলরাউন্ডার মিচেল মার্শ৷ তাঁকে জায়গা ছেড়ে দিতে বাধ্য হলেন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান পিটার হ্যান্ডসকম্ব৷ ভারতীয় পেসারদের বিরুদ্ধে হ্যান্ডসকম্বের টেকনিকে সমস্যা হচ্ছে বলে মনে হওয়ায় তৃতীয় টেস্ট থেকে ছেঁটে ফেলা হয় ২৭ বছর বয়সি ডানহাতি ব্যাটসম্যানকে৷

দু’টি টেস্টের চার ইনিংসে হ্যান্ডসক্রমে ব্যক্তিগত সংগ্রহ যথাক্রমে ৩৪, ১৪, ৭ ও ১৩৷ অ্যাডিলেডের দুই ইনিংসেই ইশান্ত শর্মার বলে আউট হন তিনি৷ তার আগে অ্যাডিলেডের দু’ইনিংসে যথাক্রমে জসপ্রীত বুমরাহ ও মহম্মদ শামি তুলে নেন হ্যান্ডসকম্বের উইকেট৷

আরও পড়ুন: কোহলিকে আটকাতে অস্ট্রেলিয়া দলে সাত বছরের লেগস্পিনার

দলে এই পরিবর্তন প্রসঙ্গে অজি অধিনায়ক টিম পেইন বলেন, ‘এটা অত্যন্ত লম্বা সিরিজ৷ স্বাভাবিকভাবেই আমাদের পেসারদের ওয়ার্কলোড কমানো দরকার৷ পেসারদের চাপ কমাতে মার্শের বোলিং আমাদের প্রয়োজন বলে মনে হয়েছে৷ আমি নিশ্চিত পিট (হ্যান্ডসকম্ব) হতাশ হবে৷ তবে নির্বাচকরা ওর সঙ্গে কথা বলেছে৷ কোন দিকগুলোয় ওর নজর দেওয়া উচিত, তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে৷’