স্টাফ রিপোর্টার, বারকপুর: ত্রিপুরায় বিজেপির জয়লাভের পর উত্তর ২৪ পরগনার হালিশহর জেটিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের অধীনস্থ বীজনা এলাকায় বিজেপির বিজয় মিছিল হয়৷ মিছিল থেকে হামলার অভিযোগ জেটিয়া গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানের দাদার পরিবারের সদস্যদের উপর৷

আরও পড়ুন: শোভনের নিরাপত্তা ছেঁটে কেষ্টকে ‘Z’ সুরক্ষা

হামলায় আহত হয়েছেন জেটিয়া গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান তথা স্থানীয় তৃণমূল নেতা কানুলাল সরকারের দাদা দুর্গাপদ সরকার, বউদি পূর্ণিমা সরকার ও ভাইঝি পিঙ্কি সেন৷ শনিবার রাতে জেটিয়া গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় বিজেপি কর্মী সমর্থকরা ত্রিপুরায় জয়ের আনন্দে বিজয় মিছিল করেছিল৷

অভিযোগ, ওই মিছিলে অংশগ্রহণকারী বিজেপি কর্মীরা রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় কানুলালবাবুর দাদা দুর্গাপদবাবু ও তার পরিবারের সদস্যদের উপর চড়াও হয়৷ বাঁশ দিয়ে মারধরও করে৷ তাদের বাড়ি লক্ষ করে ইট-পাটকেল ছোঁড়ে৷

আরও পড়ুন: বিজেপি নেতাকে মারধর ও বাড়ি ভাঙচুর, কাঠগড়ায় তৃণমূল

এই ঘটনায় ওই তৃণমূল পঞ্চায়েত প্রধানের দাদার পরিবারের তিন সদস্য জখম হয়৷ রাতেই তাঁদের নদিয়ার কল্যাণী জওহরলাল নেহরু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়৷ সেখানেই চিকিৎসাধীন আছে তারা৷ এই ঘটনায় তৃণমূল পঞ্চায়েত প্রধান কানুলাল সরকার সরাসরি বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতিদের দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছেন৷

কানুলাল বাবুর অভিযোগ, ‘‘এখন যারা এই এলাকায় বিজেপি দল করছে৷ তারাই শনিবার রাতে বিজয় মিছিল করে এই এলাকায়৷ আমার বাড়ির সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় ওরা হঠাৎই আমার বাড়িতে ঢুকে দাদার পরিবারের সদস্যদের মারধর করে৷’’ যদিও বিজেপির পক্ষ থেকে এই হামলার অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে৷

আরও পড়ুন: সম্পত্তির ভাগ না পেয়ে বাড়ি জ্বালিয়ে দিল ছেলে

স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব জানিয়েছে, স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্বের নিজেদের গোষ্ঠীকোন্দলের জেরেই এই ঘটনা ঘটেছে৷ বিজেপি নেত্রী ফাল্গুনী পাত্র বলেন, ‘‘ওরাই বলে আমাদের এত সংগঠন নেই৷ আবার ওরাই বলছে, আমাদের কর্মীরা হামলা করেছে৷ আসলে এটা ওদের দলের অন্তর্ঘাত৷ যেহেতু বীজনা এলাকায় আমাদের একটা বিজয় মিছিল বেরিয়েছিল, সেই কারণে ওরা আমাদের কর্মীদের উপর মিথ্যা দোষ দিচ্ছে৷’’

এদিকে এই ঘটনায় রবিবার সকাল থেকে জেটিয়া গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় থমথমে ভাব রয়েছে৷ গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বীজপুর থানার পুলিশ৷ এই ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ রবিবার সকাল পর্যন্ত মোট তিনজন বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতার করেছে বলে জানা গিয়েছে৷ এই ঘটনায় ওই এলাকায় পুলিশি টহল চলছে৷

আরও পড়ুন: গুরুতর পথ দুর্ঘটনা, মৃত তিন বাইক আরোহী