কলকাতা২৪x৭: নির্ধারিত ৯০ মিনিট গোলশূন্য থাকার পর সংযুক্তি সময়ে রয় কৃষ্ণার নাটকীয় গোলে ম্যাচ জিতল এটিকে-মোহনবাগান। দুরন্ত লড়াই করেও শেষরক্ষা হল না ওডিশা এফসি’র। আক্রমণ প্রতি-আক্রমণে খেলা গড়ালেও এদিন দু’দলের রক্ষণভাগের পারফরম্যান্স ছিল অনবদ্য। সুতরাং, সেই অর্থে কোনও ইতিবাচক সুযোগও তৈরি করতে পারেনি কোনও দলই।

ম্যাচ যখন নিষ্ফলা কিংবা গোলশূন্য অমিমাংসিত শেষ হতে চলেছে, ঠিক তখনই নাটক। ৯৪ মিনিটে (৯০+৪) তিরির ফ্রি-কিকে মাথা ছুঁইয়ে কৃষ্ণাকে গোলের বল বাড়ান সন্দেশ ঝিঙ্গান। ঝিঙ্গানের হেডারে মাথা ছুঁইয়েই দলের নাটকীয় জয় নিশ্চিত করেন ফিজি স্ট্রাইকার।

ম্যাচ শেষের বাঁশি। রয় কৃষ্ণার নাটকীয় গোলে ম্যাচ জিতল এটিকে-মোহনবাগান

গোওওওল… ফ্রি-কিক থেকে অন্তিম সময়ে গোল করে এগিয়ে গেল এটিকে-মোহনবাগান। গোল করলেন কৃষ্ণা

৯৪’ ফ্রি-কিক এটিকে-মোহনবাগানের পক্ষে।

সংযুক্তি সময় ৪ মিনিট

৮৯’ এটিকে-মোহনবাগানের হয়ে আইএসএলে প্রথম মাঠে নামলেন শেখ সাহিল

৮৭’ কর্নার ওডিশার অনুকূলে। কিন্তু এটিকে-মোহনবাগান রক্ষণে প্রতিহত

৮৫’ সবুক-মেরুন মিডফিল্ডার ব্র্যাড ইনমানের নেওয়া মাটি ঘেঁষা দূরপাল্লার শট বিপক্ষ গোলরক্ষকের আস্তানায়

৮৩’ কোল আলেকজান্ডারের নেওয়া দূরপাল্লার জোরালো শট প্রতিহত এটিকে-মোহনবাগান গোলরক্ষক অরিন্দমের দস্তানায়

৮২’ এটিকে-মোহনবাগানের আরও একটি ফ্রি-কিক ফলপ্রসূ হল না

৭৯’ ফ্রি-কিক এটিকে-মোহনবাগানের অনুকূলে। কিন্তু তা প্রতিহত ওডিশা রক্ষণে

৬৯’ দিয়েগো মৌরিসিওর পরিবর্তে ওডিশার হয়ে মাঠে এলেন মাইকেল ওনয়ু

৬৭’ জোড়া পরিবর্তন এটিকে-মোহনবাগানের। মনবীর সিং’য়ের পরিবর্তে নামলেন গ্লেন মার্টিন্স। জয়েশ রানের পরিবর্তে এলেন ব্র্যাড ইনমান

৬৪’ বক্সের বাইরে বিপজ্জনক জায়গায় ফ্রি-কিক ওডিশার পক্ষে

৬০’ সুযোগ এসে গিয়েছিল ওডিশার নন্দ কুমারের কাছে। কিন্তু তাঁর দূরপাল্লার শট অল্পের জন্য বার উঁচিয়ে চলে গেল মাঠের বাইরে

৫০’ বক্সের সামান্য বাইরে বিপজ্জনক জায়গায় ফ্রি-কিক এটিকে-মোহনবাগানের পক্ষে। কিন্তু কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করলেন কোল আলেকজান্ডার

৪৯’ ডানপ্রান্ত বরাবর প্রবীরের আক্রমণ কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করলেন জ্যাকব ট্র্যাট

কিক-অফ করে শুরু দ্বিতীয়ার্ধের খেলা

গোলশূন্যভাবে শেষ হল প্রথমের্ধের খেলা

৪৬’ স্টিভেন টেলরের নেওয়া ফ্রি-কিক অরিন্দমের বিশ্বস্ত দস্তানায়

সংযুক্তি সময় ২ মিনিট

৪৪’ জাভি হার্নান্দেজের নেওয়া কর্নার প্রতিহত ওডিশার রক্ষণে

৪২’ মার্সেলিনহোর নেওয়া ফ্রি-কিক থেকে ফের সুযোগ ওডিশার অনুকূলে। কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা

৪০’ এটিকে-মোহনবাগানের নেওয়া ফ্রি-কিক ওডিশার রক্ষণ দুর্গে প্রতিহত

৩৪’ কর্নার থেকে সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া ওডিশার। ফাঁকা গোলে হেডারে বল ঠেলতে ব্যর্থ জ্যাকব ট্র্যাট

৩৩’ কর্নার থেকে সুযোগ এসেছিল ওডিশার কাছে। কিন্তু জ্যাকব ট্র্যাটের প্রচেষ্টা বাগান রক্ষণে প্রতিহত

২৪’ তিরির বাড়ানো বল থেকে সুযোগ এসেছিল রয় কৃষ্ণার কাছে। কিন্তু ফিজি স্ট্রাইকারের নেওয়া শট বার উঁচিয়ে মাঠের বাইরে

২৩’ জাভির নেওয়া ফ্রি-কিক এযাত্রায় নিষ্ফলা

২২’ এটিকে-মোহনবাগানের অনুকূলে ফ্রি-কিক

১৯’ ওডিশা এফসি’র ফ্রি-কিক প্রতিহত এটিকে-মোহনবাগান রক্ষণে

১৭’ ওডিশা এফসি’র ম্যাচের প্রথম কর্নার প্রতিহত সবুজ-মেরুন রক্ষণে

১৫’ বক্সের মধ্যে দুরন্ত ট্যাকলে ওডিশার একটি আক্রমণ প্রতিহত করলেন শুভাশিস

৮’ হলুদ কার্ড দেখলেন এটিকে-মোহনবাগান ডিফেন্ডার তিরি

৭’ রয় কৃষ্ণাকে ফাউল করায় বক্সের সামান্য বাইরে ফ্রি-কিক এটিকে-মোহনবাগানের অনুকূলে

কিক-অফ করে শুরু খেলা

এটিকে-মোহনবাগান একাদশ: অরিন্দম ভট্টাচার্য, তিরি, সন্দেশ ঝিঙ্গান, প্রীতম কোটাল, কার্ল ম্যাকহিউ, জাভি হার্নান্দেজ, জয়েশ রানে, প্রবীর দাস, শুভাশিস বোস, রয় কৃষ্ণা, মনবীর সিং।

ওডিশা এফসি একাদশ: কমলজিৎ সিং, শুভম সারাঙ্গি, জ্যাকব ট্র্যাট, স্টিভেন টেলর, হেন্ডরি আন্তোনায়, কোল আলেকজান্ডার, গৌরব বোরা, লইশরাম প্রেমজিত সিং, মার্সেলিনহো, নন্দ কুমার, দিয়েগো মৌরিসিও।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।