কলকাতা: আকাশের দিকে মুখ করে মাটিতে শুয়ে রয়েছেন সর্বোচ্চ গোলস্কোরার রয় কৃষ্ণা, সঙ্গী প্রবীর দাস। কখনও আমার স্মারক গলায় খোলা মাঠে শুয়ে একাই পোজ দিলেন প্রবীর। টুকরো মুহূর্তগুলো গতকাল এটিকে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর জওহরলাল নেহরু স্টেডিয়ামের।

কৃষ্ণা, উইলিয়ামস কিংবা ইউটিলিটি প্রবীরদের ঘিরে উচ্ছ্বাসটা কয়েকগুণ বেড়ে গেল যখন রবিবার সকালে তাঁরা ছুঁলেন কলকাতার মাটি। রেকর্ড তৃতীয়বার আইএসএল চ্যাম্পিয়ন হওয়া এটিকে ফুটবলারদের বরন করে নিতে ছুটির দিন সকালে দমদম আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে জড়ো হয়েছিলেন এটিকে অনুরাগীরা। আর ফুটবলাররা পৌঁছতেই বাঁধ ভাঙল উচ্ছ্বাসের। পুষ্পস্তবক দিয়ে উইলিয়ামস, জাভি, গার্সিয়া, প্রীতমদের বরণ করে নিল ফুটবল মক্কা কলকাতার অনুরাগীরা।

চেন্নাইয়িন এফসি’কে ৩-১ গোলে হারিয়ে শনিবার তৃতীয়বারের জন্য আইএসএল খেতাব উঠেছে এটিকের হাতে। টুর্নামেন্টের ইতিহাসে প্রথম ক্লাব হিসেবে তৃতীয়বার শিরোপা জিতল সঞ্জীব গোয়েঙ্কার এই ফ্র্যাঞ্চাইজি দল। উল্লেখ্য, প্রথম ক্লাব হিসেবে আইএসএল চ্যাম্পিয়ন এবং প্রথম ক্লাব হিসেবে দু’বার আইএসএল খেতাব জয়ের নজিরও কিন্তু গড়েছিল এটিকেই। অভিষেক সংস্করণে অ্যান্তোনিও লোপেজ হাবাসের প্রশিক্ষণেই খেতাব জিতে নিয়েছিল লাল-সাদা শিবির।

এরপর ২০১৬ আরেক স্প্যানিশ কোচ জোসে মোলিনা খেতাব এনে দিয়েছিলেন কলকাতার ক্লাবটিকে। কিন্তু স্প্যানিশ ঘরানা বদলে গত দু’টি মরশুমে এটিকের সাফল্যের ভাঁড়ার ছিল শূন্য। তাই চলতি মরশুমে ফের হাবাসকে ফিরিয়ে এনে খেতাব পুনরুদ্ধারের চেষ্টা করেন কর্তারা। মরশুমে শেষে কর্তাদের সেই আস্থার মর্যাদা রাখলেন হাবাস।

শনিবাসরীয় ফাইনালে এটিকে’র হয়ে জোড়া গোল করেন স্প্যানিশ মিডিও জাভি হার্নান্ডেজ। একটি গোল আরেক স্প্যানিয়ার্ড এডু গার্সিয়ার। চেন্নাইয়ের হয়ে ভালসকিজ একটি গোল করলেও তা সমতা ফেরানোর জন্য যথেষ্ট ছিল না। কার্যত আধিপত্য নিয়েই ওয়েন কোয়েলের দলকে ধরাশায়ী করে এটিকে। প্রত্যাবর্তনেই বাজিমাত করে যান হাবাস।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ