কারাকাস: পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে প্রাণ হারাল ২৩ জন বন্দি৷ তাদের মারে পাল্টা জখম হয়েছেন ১৪ পুলিশ কর্মী৷ পুলিশ-বন্দি সংঘর্ষে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় পশ্চিম ভেনেজুয়েলার একটি সংশোধানাগার৷

ঘটনার সূত্রপাত বৃহস্পতিবার৷ অভিযোগ, বেশ কিছু ভিজিটরকে বন্দি বানায় জেলে থাকা সশস্ত্র আসামীরা৷ তাদের হাত থেকে বন্দিদের ছাড়িয়ে আনতে গেলেই পুলিশের সঙ্গে খণ্ডযুদ্ধ বেধে যায় আসামীদের৷ ঘটনাটি ঘটেছে ভেনেজুয়েলার অ্যাকারিগুয়ার একটি সংশোধনাগারে৷

প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, আসামীদের কাছে আগে থেকে মজুত অস্ত্র ছিল৷ তাদের কাছে গ্রেনেডও ছিল৷ সেই সব অস্ত্র দিয়ে পুলিশের উপর আক্রমণ করে তারা৷ দুটি গ্রেনেড বিস্ফোরণ ঘটানো হয়৷ বাধ্য হয়ে পুলিশকে তখন কড়া ব্যবস্থা নিতে হয়৷ ভেনেজুয়েলার কারাগার মন্ত্রক থেকে অবশ্য কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি৷ তবে সূত্রের খবর, এই জেলগুলি কারামন্ত্রকের অধীনে পড়ে না৷ তাই আগ বাড়িয়ে কিছু বলা তাদের পক্ষে সম্ভব নয়৷

এই ধরনের সংশোধানাগারে হিংসা নতুন ঘটনা নয়৷ বরং বাড়তে থাকা সমস্যা৷ হিংসাত্মক ঘটনার জন্য ভেনেজুয়েলার জেলগুলি বদনাম সর্বত্র৷ এর আগে ২০১৮ সালে আগুনের জেরে ৬৮ জন বন্দির মৃত্যু হয়৷ ২০১৭ সালে সাউদার্ন অ্যামাজনের একটি জেলে সংঘর্ষের ঘটনায় ৩৭ জন বন্দির মৃত্যু হয়৷