রাঁচি: ঝাড়খণ্ডে হেমন্ত সোরেনের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ তা ছবি দেখেই আঁচ করা যাচ্ছে। বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপিকে সরিয়ে আঞ্চলিক শক্তির উত্থান বিশেষভাবে গুরুত্ব পেয়েছে। শনিবার বিকেলে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পৌঁছে গিয়েছেন ঝাড়খণ্ডে।

রবিবারের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি রাহুল গান্ধী সহ রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী এবং কংগ্রেস নেতা অশোক গেহলটকে পাশাপাশি মঞ্চে দেখা যায়। উপস্থিত থাকলেন রাহুল গান্ধী, সীতারাম ইয়েচুরি, ডি রাজা, অশোক গেহলট, স্ট্যালিন, কমলনাথ, তেজস্বী যাদব, শরদ যাদব প্রমুখ।

রাতে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে আসেন ঝাড়খণ্ডের ভাবি মুখ্যমন্ত্রী। মমতার পা ছুঁয়ে আশীর্বাদ নেন তিনি। প্রত্যাশা মতোই হেমন্তের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান হয়ে উঠল বিরোধী ঐক্যমঞ্চ।গেরুয়া শিবিরের দাপটকে রুখে দিয়েছে হেমন্ত সোরেন নেতৃত্বাধীন জেএমএম-কংগ্রেস ও আরজেডি জোট। রাঁচির মোহরাবাদী মাঠে আদিবাসী অধ্যুষিত ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন ভূমিপুত্র হেমন্ত সোরেন।