স্টাফ রিপোর্টার, বালুরঘাট: উত্তরবঙ্গ সফরে রয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। বুলবুল ঘূর্ণিঝড়ের জন্য নির্ধারিত সময় সূচি পরিবর্তন করে উত্তরবঙ্গ সফর শুরু করেছেন তিনি। তাঁর এই সফরে উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলার প্রশাসনিক আধিকারিকদের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় গুলি নিয়ে বৈঠকে বসবেন তিনি। সোমবারই মুখ্যমন্ত্রী কোচবিহারে প্রশাসনিক বৈঠক সেরে রওনা হন গঙ্গারামপুরে। গঙ্গারামপুর স্টেডিয়ামে আয়োজিত মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসনিক বৈঠকের মাঝে এই উপলক্ষে বিশেষ এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে রাজ্য সরকার। সেখানেই কাশ্মীর থেকে ফেরত আসা বালুরঘাটের শ্রমিকদের হাতে ক্ষতিপূরণ বাবদ পঞ্চাশ হাজার টাকার চেক তুলে দেবেন মুখ্যমন্ত্রী।

৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের পর থেকেই অশান্ত হয়ে রয়েছে উপত্যকা। অতি সম্প্রতি সেখানে কুলগ্রামে কাজে গিয়ে জঙ্গি হামলায় প্রান হারান বাংলার পাঁচজন সাধারণ শ্রমিক। কাশ্মীরে জঙ্গি হানায় বাঙালি শ্রমিকদের মৃত্যুর ঘটনায় উত্তাল হয়ে উঠে গোটা দেশ। সব থেকে বেশি প্রভাব পড়েছিল এই রাজ্যেই। কারণ যে পাঁচজন শ্রমিক মারা গিয়েছিলেন তাঁরা সবাই পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা ছিলেন। ফলে কাশ্মীর থেকে বাকি বাঙালি শ্রমিকদের ফিরিয়ে আনতে তোড়জোড় শুরু করে রাজ্য সরকার। অবশেষে ৫ নভেম্বর বিকালে চোখে মুখে আতঙ্কের ছাপ নিয়ে কাশ্মীর থেকে কলকাতায় ফেরেন শ্রমিকেরা। সেই দিন রাতেই মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগে বিশেষ বাসে করে কলকাতা থেকে বালুরঘাটের উদ্দ্যেশে রওনা দেন তাঁরা।

কাশ্মীর থেকে কাজ হারিয়ে বাড়ি ফিরে প্রান নাশের ভয় কেটে গেলেও শুরু নতুন দুশ্চিন্তা। কী খাবেন তাঁরা? কি কাজ করবেন, পরিবারের সকলের মুখে কিভাবে দুবেলা দু মুঠো ভাত তুলে দেবেন সেই চিন্তায় দিশেহারা হয়ে পড়েন কাশ্মীর ফেরত এই শ্রমিকেরা। আর সেই উদ্দ্যেশেই ঘর ফেরত শ্রমিকদের নতুন করে কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিতে বিশেষ উদ্যোগ নেন মুখ্যমন্ত্রী।

কাশ্মীর থেকে ফিরে আসা শ্রমিকরা যাতে এই রাজ্যে নতুন কোনও কাজ পাই বা কিছু করে খেতে পারে সেই উদ্দেশ্যে তিনি ঘোষণা করেছিলেন ফিরে আসা শ্রমিকদের প্রত্যেককে ক্ষতিপূরণ বাবদ পঞ্চাশ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে।  সেই কথা মত দুই সপ্তাহের মাথায় গিয়ে মঙ্গলবার প্রত্যেক শ্রমিককে নিজের হাতে চেক তুলে দেবেন বলে প্রশাসন সূত্রে এই খবর জানা গিয়েছে।