স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: মাটির দেওয়াল চাপা পড়ে মর্মান্তিক ভাবে মৃত্যু হল এক বৃদ্ধের। এই ঘটনায় গুরুত্বর আহত হয়েছে ওই পৌঢ়ের স্ত্রীও। মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। পুলিশ জানিয়েছে মৃত ওই বৃদ্ধের নাম সুবোধ সামন্ত (৭০)। আহত স্ত্রীর নাম প্রতিমা সামন্ত। শুক্রবার ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়ার জয়পুর থানার নামো সোলদা গ্রামের সামন্ত পাড়ায়। মর্মান্তিক এই ঘটনায় এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শুক্রবার সকালে ওই ব্যক্তি তার স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে বাড়ি সংলগ্ন গোয়াল ঘরের দেওয়ালে কাজ করছিলেন। সেই সময় গোয়াল ঘরের দেওয়ালের একাংশ ভেঙে পড়ায় তিনি তার নিচে চাপা পড়ে যান। স্থানীয় বাসিন্দারা গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে জয়পুর ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যান। সেখানে নিয়ে যাওয়া হলে সুবোধ সামন্তকে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।

তার স্ত্রী প্রতিমা সামন্তকে বিষ্ণুপুর জেলা হাসপাতাল পাঠানো হয়। এবং পরে তাঁর অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। বর্তমানে সেখানেই চিকিৎসা চলছে তাঁর।

মৃতের ভাইপো শ্যামাপদ সামন্ত বলেন, ”কাকু-কাকিমা দু’জনেই গোয়াল ঘরে কাজ করছিলেন।” জানা গিয়েছে, সেই সময় হঠাৎই ওই মাটির দেওয়াল ভেঙে পড়ে। এই ঘটনায় সুবোধ সামন্তের মৃত্যু হলেও কাকিমার ডান পা ভেঙে গুরুতর আহত অবস্থায় বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভরতি বলে তিনি জানিয়েছেন।

মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য বিষ্ণুপুর জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে জয়পুর থানার পুলিশ।