শঙ্কর দাস, বালুরঘাট: ঘরে খাবার নেই। লকডাউনের জেরে নেই রোজগারও। সন্তানদের মুখে ভাত তুলে দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে পরিবারের মহিলাদের।

এরই মধ্যে মদের দোকান খুলে যাওয়ায় স্বামীরা মাতাল হয়ে বাড়ি ফিরে অশান্তি ও মারধর করছেন। এমনই অভিযোগ তুলে অবিলম্বে মদ বিক্রি বন্ধের দাবিতে মদের দোকানের সামনে বিক্ষোভ মহিলারাদের। দক্ষিণ দিনাজপুরের বুনিয়াদপুরের ঘটনা।

শুক্রবার দুপুরে বুনিয়াদপুর ও তার আশপাশের এলাকার কয়েকশো মহিলা মিছিল করে মদের দোকান গুলির সামনে হাজির হয়ে বিক্ষোভ দেখান। তাদের দাবি অবিলম্বে মদের দোকান বন্ধ করুক সরকার। মদের দোকান খোলা থাকায় চরম অসহায়তার মধ্যেও তাদের পরিবারে অশান্তি বেড়ে চলেছে।

বিক্ষোভে শিবপুর এলাকায় বাড়ি যুথি পাহান অভিযোগ করে বলেন কাজকর্ম বন্ধ থাকায় তাঁদের স্বামীরা কর্মহীন হয়ে রয়েছে। রোজগার না থাকায় ছেলে মেয়েদের সামান্য নুন ভাত দিতেই হিমশিম খেতে হচ্ছে।

পরিস্থিতি এমন যে অনেকে খাবার জোটাতে ঘরের জিনিসপত্রও বিক্রি করতে শুরু করেছেন। এই পরিস্থিতিতে পর্যাপ্ত খাবারের ব্যবস্থা না করে মদ বিক্রি শুরু করেছে সরকার।

মদের কারণে মহিলাদের অশান্তি উল্টে আরও বেড়ে গিয়েছে। স্বামীরা দৈনিক মদ খেয়ে এসে বাড়িতে অশান্তি ও তাঁদের মারধরও করছে। যেকারণে অবিলম্বে মদের দোকান বন্ধের দাবিও তোলেন তিনি।

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব