স্টাফ রিপোর্টার, বালুরঘাট: মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা সত্বেও বড় রেশনকার্ডে জিনিসপত্র না-পেয়ে ক্ষোভ ফেটে পড়লেন গ্রাহকরা৷ দক্ষিণ দিনাজপুরের বংশীহারিতে ক্ষুব্ধ গ্রাহকরা তালা ঝুলিয়ে রেশন দোকান বন্ধ করে দিয়েছেন৷

বংশিহারি থানার কল্যাণী এলাকার রেশন ডিলারের বিরুদ্ধে অভিযোগ, বড় রেশন কার্ডের গ্রাহকদের জিনিসপত্র দেওয়া হচ্ছে না। চাল গম আটা না-পেয়ে এলাকার মানুষ দোকানে তালা মেরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান মহকুমা খাদ্য নিয়ামক।

স্থানীয় বাসিন্দা ওয়াসিম আলি জানিয়েছেন, লকডাউনের জেরে তাঁদের এলাকার সকলেই অসহায় অবস্থার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। এমতাবস্থায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় ঘোষণা করেছেন যে অন্যান্যদের মতো বড় রেশনকার্ডের গ্রাহকরাও রেশনের সামগ্রী পাবেন। সেই সামগ্রী নিতেই এলাকার সকলে সকাল থেকে রেশন দোকানে লাইন দিয়ে অপেক্ষা করছিলেন। কিন্তু রেশন ডিলার তাঁদের রেশন সামগ্রী দিতে রাজি হননি। উল্টে তিনি গ্রাহকদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন। এরই প্রতিবাদে দোকানে তালা লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এব্যাপারে মহকুমার খাদ্য আধিকারিক নন্দদুলাল দাস জানিয়েছেন যে, বিক্ষোভের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে তিনি গিয়েছিলেন। স্থানীয়দের অভিযোগ তিনি শুনেছেন। দ্রুত রেশন সামগ্রী দিতে বড় কার্ডের গ্রাহকদের স্লিপ দেওয়ার ব্যবস্থা করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

করোন নামক মারণ ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সারা দেশে চলছে লকডাউন৷ শনিবারই লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর কথা ঘোষণা করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী৷ রাজ্যে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন চলবে বলে জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা একশো ছুঁইছুঁই৷ মারা গিয়েছেন ৫ জন৷ রাজ্যবাসীকে লকডাউনে থাকার অনুরোধ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব