কলকাতা:  করোনা মোকাবিলায় বড় সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার৷ সোমবাার বিকেল ৫টা থেকে ২৭ মার্চ মধ্যরাত পর্যন্ত লক-ডাউনের বিজ্ঞপ্তি জারি রাজ্যের৷ কলকাতা-সহ রাজ্যের ২৩টি জেলা সদরে এই লক-ডাউন কার্ষকর করা হবে বলে সরকারিভাবে জানানো হয়েছে৷ এই সময়ে প্রকাশ্যে ৭ জনের বেশি জমায়েত হওয়া যাবে না৷

লক-ডাউন অর্থাৎ অফিস, দোকানপাট থেকে গোডাউন সব কিছু বন্ধ থাকবে৷ তবে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস যেমন মেডিসিন দোকান, মুদির দোকান, সবিজ বাজার এবং মাছ, মাংস, ডিম ও দুধের দোকান খোলা থাকবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে পরিষ্কার জানানো হয়েছে৷ খোলা থাকবে  এছাড়াও চালু থাকবে অন-লাইন শপিং ব্যবস্থা৷ খোলা থাকবে ব্যংক, এটিএম, পোস্ট অফিস, ইন্টারনেট পরিষেবা৷

১কোচবিহার –জেলা শহর ২আলিপুরদুয়ার জেলা শহর, জয়গাঁও শহর ৩,জলপাইগুড়ি-জেলা শহর ৪কালিম্পিং জেলা শহর ৫,দার্জিলিং – দার্জিলিং কার্শিয়াং ও শিলিগুড়ি শহর ৬,উত্তর দিনাজপুর-পুরো জেলা ৭দক্ষিণ দিনাজপুর- জেলা শহর ৮মালদহ- গোটা জেলা ৯মুর্শিদাবাদ- গোটা জেলা ১০ নদিয়া- গোটা জেলা ১১বীরভূম- সব পুর-শহর ১২পশ্চিম বর্ধমান-পুরো জেলা ১৩,পূ্র্ব বর্ধমান- জেলা শহর, কালনা , কাটোয়া ১৪পুরুলিয়া-জেলা শহর ১৫বাঁকুড়া-জেলা শহর, বরজোড়া শহর, বিষ্ণুপুর শহর ১৬ পশ্চিম মেদিনীপুর- জেলা শহর, খড়গপুর, ঘাটাল,

১৭ ঝাড়গ্রাম-জেল্ শহর ১৮,পূর্ব মেদিনীপুর-জেলা শহর, হলদিয়া শহর, দিঘা শহর,কোলাঘাট শহর, কাথি শহর ১৯, হাওড়া –গোটা জেলা ২০হুগলি-জেলা শহর, চন্দনগনগর,কোন্নগর,আরামবাগ, শ্রীরামপুর, ২১দক্ষিণ ২৪পরগণা-ডায়মন্ডহারবার,ক্যানিং, সোনারপুর, বারুইপুর,ভাঙড়, বজবজ, মহেশতলা ২২ উত্তর ২৪ পরগণা-সব পুর শহর, যার মধ্যে থাকছে সল্টলেক, নিউটাউন ২৩,কলকাতা –গোটা পুরসভা এলাকা

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।