স্টাফ রিপোর্টার, আসানসোল: ভোটের আগেই দুষ্কৃতী হামলা বিজেপি কর্মীদের উপর৷ বাইকে করে এসে হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ গেরুয়া শিবিরের৷ দুষ্কৃতীরা রাজ্যের মন্ত্রী মলয় ঘটকের ঘনিষ্ট বলে দাবি আসানসোলের বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়র৷

পাঁচ বছর আগে মোদী ম্যাজিক থাবা বসাতে পারেনি বাংলায়৷ কিন্তু ব্যাতিক্রম ছিল আসানসোল৷ জোড়াফুলের বিকাশের মাঝেও শিল্পাঞ্চলে ফুটেছিল পদ্ম৷ জয় পান বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়৷ এবার তাই আসানসোলে জিততে মরিয়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বাঁকুড়া থেকে এনে প্রার্থী করা হয়েছে মুনমুন সেনকে৷

আরও পড়ুন: ২০১৪ ছিল মোদী ঝড়, ১৯শে হবে মোদী সুনামি, দাবি পুনম মহাজনের

ছাড়নেওয়ালা নয় গেরুয়া বাহিনীও৷ বুধবারই আসনসোলে জনসভা করেন প্রধানমন্ত্রী মোদী৷ প্রচারেই স্পষ্ট শিল্পাঞ্চল শাসক বিরোধী দুই শিবিরের কাছেই প্রেসটিজ ফাইট৷ লড়াই তাই সেয়ানে সেয়ানে৷ রয়েছে ভোটের উত্তাপ৷ সঙ্গে বিরোধী শিবিরকে জোড় করে ভয় পাইয়ে দেওয়া চেষ্টা৷ তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ বিরোধীদের৷

পদ্ম শিবিরের সেই অভিযোগকেই যেন খানিকটা মান্যতা দিল বুধবার রাতে বিজেপির আসানসোল উত্তর মণ্ডলের সভাপতি ও আইনজীবী ইন্দ্রনীল ঘোষের উপর আক্রমণের ঘটনা৷ ইন্দ্রনীলবাবু একা নন, দুষ্কতী তাণ্ডবে আহত আরও পাঁচ বিজেপি কর্মীও৷

অভিযোগ, বুধবার রাত এগারোটা নাগাদ আসানসোলের হিল ভিউ নর্থে ইন্দ্রনীল নিজের বাড়ির দলীয় কার্যালয়ে কাজ সেরে গেট বন্ধ করছিলেন। সেই সময় বাইকে চেপে এসে জনা দশেক ছেলে তাঁর উপর আক্রমণ চালায়। ভাঙচুর করে বাড়ি। ইন্দ্রনীলের চোখের নীচের অংশে মেরে ফাটিয়ে দেওয়া হয়। সাতটি সেলাই পড়ে। মাথাতেও আঘাত লাগে তাঁর। এক কর্মীর হাত ভেঙে দেওয়া হয়। মাথা ফাটে আরও একজনের৷

আরও পড়ুন: বারাণসীতে শক্তি পরীক্ষা করতে আজ মোদীর রোড শো

ঘটনার পর পরই পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা৷ আসানসোল উত্তর থানায় অভিযোগ করা হয় বিজেপির পক্ষ থেকে৷ অভিযোগ সেই সময় ফের সামনে আসে ওই দুষ্কতীরা৷ আহত বিজেপি কর্মীদের শাসাতে থাকে আক্রমণকারীরা৷ পুলিশের সামনে হুমকি দিলেও তাদের গ্রেফতার করা হয়নি বলে অভিযোগ বিজেপির আসানসোল উত্তরের মণ্ডলের সভাপতির৷

ইন্দ্রনীলকে রাতে জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গভীর রাতে তাঁকে হাসপাতালে দেখতে যান আসানসোলের বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়। তিনি বলেন, ‘‘আসানসোল উত্তরের মণ্ডল সভাপতি হিসাবে ইন্দ্রনীল বিরোধী ভোটে থাবা বসিয়েছেন। তিনি জনপ্রিয় নেতা। ফলে ভয় পেয়েছে তৃণমূল৷ তাই রাজ্যের মন্ত্রীর পোষা গুন্ডাদের টার্গেট হয়েছেন।’’ বাবুলের দাবি, সোমবারের ভোটেই মানুষ এর জবাব দেবেন।