গুয়াহাটি: নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদ অসমজুড়ে৷ মঙ্গলবার সকাল থেকে অসমের ডিব্রুগড়, জোড়হাটের বিভিন্ন এলাকায় রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ-বিক্ষোভে সোচ্চার হন সাধারণ মানুষ৷ বঙ্গাইগাঁওয়ের বিভিন্ন এলাকাতেও সকাল থেকে বিক্ষোভ৷ রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে চলে অবরোধ৷ মঙ্গলবার সকাল থেকে অসমের জোড়হাট, ডিব্রুগড়ের বিভিন্ন এলাকায় শুনশান রাস্তাঘাট, বন্ধ দোকানবাজার, বন্ধ যানবাহন চলাচলও৷

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে মঙ্গলবার অসমে ১১ ঘণ্টার বনধ নর্থ-ইস্ট স্টুডেন্ট অর্গানাইজেশন বা এনইএসও-র৷ বনধকে সমর্থন আরও ১৬টি সংগঠনের৷ বনধের সমর্থনে এসএফআই, ডিওয়াইএফআই, এআইডিডব্লিউএ, এআইএসএফ, এআইএসএ এবং আইপিটিএ-র মত সংগঠন৷

অশান্তির আশঙ্কায় মঙ্গলবার অসমের একাধিক বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয়৷ বনধ ঘিরে অপ্রীতিকর পরিস্থিতির মোকাবিলায় আগেভাগেই সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয় অসম প্রশাসন৷ অশান্তির কথা মাথায় রেখে অসমের লখিমপুর ও সোনিতপুর জেলায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। প্রশাসনের তরফে খোলা হয় হোয়াটসঅ্যাপ হেল্পলাইন৷

সোমবার রাতে লোকসভায় পাস হয়েছে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল৷ তুমুল হইচইয়ের মধ্যে লোকসভায় পাস হয় বিল৷ বিল পেশের পরই প্রতিবাদে সোচ্চার হন বিরোধী সাংসদরা৷ সোমবার দিনভর লোকসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে চলে বিতর্ক৷ নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল ভারতের বহুত্ববাদ বিরোধী বলেও সওয়াল করে বিরোধী দলগুলি৷

ধর্মের ভিত্তিতে নাগরিকত্ব দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে বলে সওয়াল করেন বিরোধী সাংসদরা৷ দিনভর বিতর্ক শেষে রাত ১২টায় লোকসভায় পাস হয় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল৷

বিলের পক্ষে মত দেন ৩১১ সাংসদ, বিলের বিরুদ্ধে ভোট ৮০ সাংসদের৷ লোকসভার পর এবার নজর রাজ্যসভায়৷ রাজ্যসভায় বিলটি পাস হয়ে গেলে আফগানিস্থান, পাকিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে আসা সে দেশের সংখ্যালঘুরা এদেশে ৫ বছর থাকলেই নাগরিকত্ব পেয়ে যাবেন৷

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও