ঢাকা: প্রতিবেশী দেশ ভারতের অঙ্গরাজ্য অসমে এনআরসি চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ হয়েছে। ১৯ লক্ষের বেশি মানুষের নাম কাটা গিয়েছে চূড়ান্ত তালিকায়। এদের বাংলাদেশি বলে চিহ্নিত করার প্রক্রিয়া চলছে।

এই বিতর্কে মুখ খুললেন অন্যতম বিরোধী দল বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, বাংলাদেশের সামনে শুধু রোহিঙ্গা সমস্যা নয়, দেশে আরও বিপদ আসছে। চতুর্দিক থেকে বিপদ আসছে। ভারতের অসমে এনআরসি বাংলাদেশের জন্য একটা বিপদ জানান দিচ্ছে।

ঢাকায় সাংবাদিক বৈঠকে মির্জা ফখরুল আরও বলেন, বাংলাদেশের মানুষকে সজাগ হতে হবে। দেশের মানুষকেই তার স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষা করতে হবে। বাংলাদেশের মানুষকেই গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে এবং তা রক্ষা করতে হবে।

ঢাকার জাতীয় প্রেস ক্লাবে বিএনপি দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ১২তম কারামুক্তি দিবস পালন করে। সেই অনুষ্ঠানে এনআরসি নিয়ে মন্তব্য করেন বিএনপি মহাসচিব।

লন্ডনেই রয়েছেন তারেক রহমান। বিভিন্ন মামলায় বাংলাদেশ সরকারের কাছে তিনি পলাতক বলেই চিহ্নিত। এর অন্যতম ২১ অগস্ট তৎকালীন বিরোধী নেত্রী শেখ হাসিনার উপর ভয়াবহ গ্রেনেড হামলা। হুজি বি জঙ্গি সেই হামলা চালিয়েছিল। সেই মামলায় কারাদণ্ডের সাজা দেওয়া হয়েছে বিএনপির বর্তমান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে। তিনি দলের সুপ্রিমো তথা প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার পুত্র।

আর্থিক দুর্নীতির মামলায় জেলে বন্দি খালেদা জিয়া। তাঁকে বন্দি করে জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন করার ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে চলা আওয়ামী লীগের সরকার। এমনই অভিযোগ বিএনপির।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল বলেছেন, দেশে গণতন্ত্র নেই, মানুষ ভোট দিতে পারেনি। মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার নেই, মানুষ ন্যায়বিচার পায় না।। তারা অসহায়। তাই গণতন্ত্রকে উদ্ধার করতে হবে। এটা কেউ দিয়ে যাবে না। বিএনপিকেই সেই আন্দোলনে, সেই যুদ্ধে নেতৃত্ব দিতে হবে। মানুষকে জাগিয়ে তুলতে হবে, দেশকে সামনের দিকে নিয়ে যেতে হবে।