গুয়াহাটি: বিজেপি শাসিত অসমে ফের গোমাংস বিক্রেতাকে নিগ্রহের অভিযোগ৷ অভিযোগ ঘিরে উত্তাল অসমের বিশ্বনাথ চারিয়ালি এলাকা৷ গোমাংস বিক্রির অভিযোগে ৬৮ বছর বয়েসী সওকত আলিকে বেধড়ক মারধর করে উত্তেজিত জনতা৷ এমনকি তাঁকে শূকরের মাংসও খাওয়ানো হয় বলে অভিযোগ৷

সাতই এপ্রিল এই ঘটনা ঘটে৷ এই গোটা ঘটনাটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়৷ ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, বাজারের মধ্যে জল কাদায় মাখামাখি এক মুসলিম প্রৌঢ় বসে রয়েছেন, তাঁকে ঘিরে রয়েছে উত্তেজিত জনতা৷ তিনি বাজারের মধ্যে গোমাংস বিক্রি করছিলেন বলে অনুমান করে জনতা৷ তারপরেই শুরু হয় নিগ্রহ৷

শওকত আলির নাগরিকত্ব নিয়েও প্রশ্ন তোলা হয়৷ জিজ্ঞাসা করা হয় এনআরসি সার্টিফিকেট তাঁর রয়েছে কিনা, নাকি তিনি একজন বাংলাদেশী৷ স্থানীয় পুলিশ উদ্ধার করে শওকত আলিকে৷ পুলিশ সূত্রে খবর, গত ৩৫ বছর ধরে শওকত ওই বাজারের ব্যবসায়ী৷ সেখানেই তিনি গোমাংস বিক্রি করেন৷ তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায় যখন ওই ব্যবসায়ীকে শূকরের মাংস খেতে বাধ্য করা হয়৷

আরেকটি ভিডিও দেখা গিয়েছে উত্তেজিত জনতা শওকত আলিকে একটি প্যাকেট থেকে মাংস খেতে বাধ্য করছে৷ তাদের দাবি এটি শূকরের মাংস৷ মারধরের ঘটনায় বেশ আহত হয়েছে ওই ব্যবসায়ী৷ স্থানীয় হাসপাতালে পরে তাঁকে ভরতি করা হয়৷ শুধু শওকত আলিই নয়, ওই বাজারের ম্যানেজারকেও নিগ্রহ করা হয় বলে অভিযোগ৷ অজ্ঞাতপরিচয়ের বিরুদ্ধে স্থানীয় থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে পুলিশ৷

এই ঘটনায় সরব হয়েছেন এআইএমআইএম সাংসদ আসাদুদ্দিন ওয়াসি৷ ট্যুইট করে গোটা ঘটনার নিন্দা করেছেন তিনি৷