গুয়াহাটি: সিসিটিভি ফুটেজের ছবি দেখে ভয়ে কাঠ হয়ে গিয়েছেন ওএনজিসি দফতরের কর্মীরা। একটা চিতা মনের আনন্দে অফিসের মধ্যে ঘুরছে। বিরাট তার চেহারা।

ঘটনা শিবসাগর জেলার নাজিরা ওএনজিসি দফতরের। এখানেই চিতার হানা হয়েছে। জানা গিয়েছে রাতে দফতর বন্ধের পর কর্মীরা চলে যান। তার পরেই চিতা ঢুকে ঘুরছিল। সিসিটিভি তে সেই ছবি ধরা পড়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, এলাকায় একটা চিতা মাঝে মধ্যে দেখা যায়। তবে সেটা যে এভাবে ওএনজিসি দফতরের ভিতরেই ঢুকবে তা কে জানত।

চিতার আনাগোনার ছবি দেখে অফিসের চৌহদ্দিতে বিশেষ পাহারার ব্যবস্থা করা হয়েছে। জারি হয়েছে সতর্কতা। বনবিভাগের কর্মীরা জানিয়েছেন চিতা ভিতরেই রয়েছে। তাকে ধরতে ফাঁদ পাতা হয়েছে।

এদিকে অফিসের মধ্যে চিতা ঢুকে বসে থাকায় কর্মীরা ভীত। ওই চিতা কি মানুষখেকো ? কেউ জানে না। বনকর্মীরা চেষ্টা চালাচ্ছেন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।