গুয়াহাটি: অসমের বন্যা পরিস্থিতি ক্রমেই ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে। ইতিমধ্যেই রাজ্যের ২৫ জেলা বন্যার কবলে পড়েছে। হাজার-হাজার পরিবার ঘরছাড়া। সরকারি ত্রাণ-শিবিরগুলিতে উপচে পড়া ভিড়। করোনা আবহেও ত্রাণ শিবিরগুলিতে শিকেয় সামাজিক দূরত্ব-বিধি। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় উদ্ধারকাজ চালাচ্ছে প্রশাসন।

রাজ্য প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, অসমের ৩৩ জেলার মধ্যে অধিকাংশ জেলাই বন্যার কবলে পড়েছে। পরিস্থিতি ক্রমেই বিপজ্জনক রূপ নিচ্ছে। রাজ্য প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, অসমের ৩৩ জেলার মধ্যে ২৫টি জেলাই এখন বন্যার কবলে পড়েছে ৷ বাড়িঘর তো বটেই কয়েক হাজার হেক্টর চাষের জমিও জলের তলায় গিয়েছে।

অসমের ধুবড়ি, জোরহাট, কোকরাঝাড়, তিনসুকিয়া, ডিব্রুগড়-সহ একাধিক জেলায় বন্যা পরিস্থিতি ক্রমেই উদ্বেগজনক চেহারা নিচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্তদের সরকারি ত্রাণ শিবিরগুলিতে সরানো হচ্ছে। অসমের এই বন্যায় লক্ষ-লক্ষ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। গোয়ালপাড়া, জোরহাট, ডিব্রুগড়, তিনসুকিয়া, ধিমাজি, দক্ষিণ সালমারা, লাখিমপুর, নলবাড়ি, বারপেতা, কোকড়াঝোড়ে বন্যার জল ঢুকেছে ৷

বন্যা চরম পরিস্থিতি তৈরি করায় প্রাণহানিও হয়েছে অসমে। রাজ্যের বারপেটা, দক্ষিণ সালমারা, নলবাড়িতে বন্যা পরিস্থিতি উদ্বেগ আরও বাড়িয়েছে ৷

গোটা অসমের প্রায় ৭৬ হাজার হেক্টর চাষজমি জলের তলায়। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় উদ্ধারকাজ চালাচ্ছে প্রশাসন। বোটে করে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় ঢুকছে বিপর্যয় মোকাবিলা দল। আটকে থাকা বাসিন্দাদের উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে ত্রাণ শিবিরগুলিতে।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV