Ashwin to achieve rare Test double
চিপকে সেঞ্চুরির পর রবিচন্দ্রন অশ্বিন৷

চেন্নাই: চিপকে ঘূর্ণি পিচে সেঞ্চুরি করে অনেক কিছুর জবাব দিলেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন৷ প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ড ১৩৪ রানে গুটিয়ে যাওয়ার পর চিপকের পিচ নিয়ে কম চর্চা হয়নি৷ কিন্তু সেই পিচেই তৃতীয় ইনিংসে দুরন্ত শতরান এল আট নম্বরে নামা অশ্বিনের ব্যাট থেকে৷ ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে পাঁচ উইকেট নেওয়ার পর ১০৬ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলেন টিম ইন্ডিয়ার ৩৪ বছরের অল-রাউন্ডার৷

একই ম্যাচে ইনিংসে ৫ উইকেট এবং সেঞ্চুরির নজির আগেও করেছেন অশ্বিন৷ এ নিয়ে তৃতীয়বার সেঞ্চুরি ও ইনিংসে পাঁচ উইকেট নিয়ে কিংবদন্তি ইংরেজ অল-রাউন্ডার ইয়ান বোথামের পাশে জায়গা করে নিলেন ভারতীয় এই অফ-স্পিনার৷ বোথামের পর অশ্বিন হলেন দ্বিতীয় ক্রিকেটার, যিনি দু’বারের বেশি এই কৃতিত্ব অর্জন করেছেন৷

এর আগে জ্যাক কালিস, গ্যারি সোবার্স, শাকিব-আল হাসান, মুস্তাক মহম্মদকে ছুঁয়েছিলেন অশ্বিন৷ এদিন ইংরেজ বোলারদের শাসন করে এই চার ক্রিকেটারকে ছাপিয়ে গেলেন ভারতীয় এই অফ-স্পিনার৷ ৯৯ রানে দাঁড়িয়ে মোয়েন আলিকে বাউন্ডারি মেরে সেঞ্চুরিতে পৌঁছন টিম ইন্ডিয়ার এই অল-রাউন্ডার৷ শেষ পর্যন্ত ১০৬ রানে আউট হন অশ্বিন৷ ২৮৬ রানে শেষ হয় ভারতের দ্বিতীয় ইনিংস৷ ইংল্যান্ডের সামনে রেকর্ড ৪৮২ রানের টার্গেট৷

ব্যাট ও বল হাতে দারুণ ফর্মে রয়েছেন অশ্বিন৷ অস্ট্রেলিয়া সফরের মতো ইংল্যান্ড সিরিজেও ব্যাটে-বলে তামিল এই অফ-স্পিনারের ফর্ম অব্যাহত৷ সিডনি টেস্টে ৩৯ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলে ভারতকে ম্যাচ বাঁচাতে সাহায্য করেছিলেন অশ্বিন৷ অ্যাডিলেডে অস্ট্রেলিার বিরুদ্ধে সিরিজের প্রথম টেস্টে ৫ উইকেট নিয়েছিলেন৷ তারপর মেলর্বোনে পাঁচ উইকেট৷ অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ভারতের দ্বিতীয়বার টেস্ট সিরিজে জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছিলেন অশ্বিন৷

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টে বল হাতে ভেলকি দিখিয়েছেন অশ্বিন৷ ভারত টেস্ট হারলেও দ্বিতীয় ইনিংসে ৬ উইকেট-সহ ম্যাচে ৯ উইকেট নিয়েছিলেন তিনি৷ ব্যাটেও ৩১ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেছিল৷ চিপকে দ্বিতীয় টেস্টে বল হাতে ৫ উইকেট নেওয়ার পাশাপাশি ব্যাটে ৩১ ও ১০৬ রানের ইনিংস খেলে ভারতকে জয়ের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেন ৩৪ বছরের তামিল অল-রাউন্ডার৷ এদিন সেঞ্চুরিতে পৌঁছে টেস্ট ক্রিকেটে পঞ্চম সেঞ্চুরি নিজের নামে করেন অশ্বিন৷ দ্বিতীয় ইনিংসে ইংল্যান্ড ইনিংসের পাঁচটি উইকেট তুলে নিতে পারলে বিশ্বের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ম্যাচে ১০ উইকেট এবং দ্বিতীয় ইনিংসে সেঞ্চুরি করার অনন্য নজির গড়বেন তিনি৷

তামিলনাড়ুর দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে চিপকে সেঞ্চুরি করলেন অশ্বিন৷ এর আগে ১৯৮৬-৮৭ সালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ১২৩ রান করেছিলেন কৃষ্ণমাচারী শ্রীকান্ত৷ অশ্বিনের ব্যাটিংয়ের ভূয়সি প্রশংসা করে সুনীল গাভাস্কর বলেন, ‘গতকাল পাঁচ উইকেট নেওয়ার পর অশ্বিন সাংবাদিক বৈঠকে বলেছিল, এই পিচে ব্যাট করতে হলে ধৈর্য রাখতে হবে৷ আর এদিন ব্যাট হাতে সেটাই করে দেখাল৷’

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.