বেঙ্গালুরু: বিশ্বকাপের আগে আইপিএলের গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে যতই প্রশ্নচিহ্ন থাক, আইপিএলের কারণে আখেড়ে বিশ্বকাপে লাভবান হবেন ভারতীয় ক্রিকেটাররাই। ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ শুরুর প্রাক্কালে এমনটাই জানালেন বেঙ্গালুরু  ফ্র্যাঞ্চাইজির বোলিং কোচ তথা জাতীয় দলের প্রাক্তন পেসার আশিস নেহরা।

শনিবার রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের একটি মোবাইল অ্যাপ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গিয়ে এই বাঁ-হাতি পেসার জানান, ‘আইপিএল একটি উত্তেজক টুর্নামেন্ট। একাধিক চাপের মুহূর্তে থাকতে হয় ক্রিকেটারদের। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের মতই সমান গুরুত্বপূর্ণ আইপিএল। তাই ক্রিকেটাররাও এই ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ খেলতে মুখিয়ে থাকেন।’

একইসঙ্গে আইপিএলে অংশগ্রহণ না করে বিশ্বকাপে ক্রিকেটারদের তরতাজা হয়ে মাঠে নামার যুক্তি খণ্ডন করে নেহরা জানান, ‘কেউ যদি বলেন বিশ্বকাপের কারণে কোহলির আইপিএল খেলা উচিৎ না, তবে আমি তাঁকে সমর্থন করি না।’ উল্লেখ্য, টাইটানিকের শহরে সাউদাম্পটনে বিশ্বকাপে ভারতের ম্যাচ আগামী ৫ জুন। অর্থাৎ আইপিএল ফাইনাল থেকে বিশ্বকাপে ভারতের প্রথম ম্যাচের মধ্যে ব্যবধান সপ্তাহ তিনেকের।

আরও পড়ুন: শুভমনের জন্য ব্যাটিংয়ের সব জায়গাই খোলা রাখছে কেকেআর

তাই নেহরার মতে, ‘কেউ আহত না হলে তিন সপ্তাহ যথেষ্ট সময়। কেউ আমায় যদি প্রস্তাব দেন আইপিএল ফাইনাল খেলে তিন সপ্তাহ বিশ্রাম নেওয়ার পর বিশ্বকাপে গিয়ে সরাসরি বল করতে, আমি কখনওই সেই প্রস্তাবে সায় দেবো না।’ বছর ঊনচল্লিশের নেহরার মতে, ‘আইপিএলে চাপের মুখে ক্রিকেট খেলে কিছুটা ধাতস্থ হতে পারবেন ক্রিকেটাররা। বিশ্বকাপেও চাপের মুহূর্তে যা সাহায্য করবে তাদের।’

আরও পড়ুন: আইপিএলে ক্রিকেটার ছাড়া নিয়ে দ্বিধায় ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা

তাই বিশ্বকাপের মহড়া হিসেবে আইপিএল ভারতীয় ক্রিকেটারদের যে সুবিধা করে দেবে তা মনে করিয়ে দেন নেহরা। ‘উপর্যুপরি বিশ্রাম অবশ্যই প্রয়োজন। কিন্তু ক্রিকেটার হিসেবে আমি যদি আইপিএলে ভালো লাইন লেংথে বল করতে পারি কিংবা ইয়র্কারে ব্যাটসম্যানদের বিভ্রান্ত করতে পারি, তাহলে বিশ্বকাপে পারফর্ম করাটা অনেক সহজ
হয়ে যাবে। কিন্তু কেউ যদি বিশ্বকাপের কথা ভেবে বাড়িতে ছুটির মেজাজে থাকে, অনুশঈলন থেকে নিজেকে বিরত রাখে। তাহলে সে ভুল করবে।’ জানান বেঙ্গালুরু ফ্র্যাঞ্চাইজিতে কোহলিদের বোলিং কোচ।