লন্ডন: আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে স্বপ্নের উত্থান৷ তবে বিশ্বকাপের ঠিক আগেই অবাঞ্ছিত বিতর্কে জড়িয়ে পড়ে আফগান ক্রিকেট৷ আইসিসি’র ফ্ল্যাগশিপ টুর্নামেন্টের মাস দু’য়েক আগে নেতৃত্বে বড়সড় রদবদল করে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড৷ কোচ তথা টিম ম্যানেজমেন্টকে কিছু না জানিয়েই ক্যাপ্টেন্সি থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় আসগর আফগানকে৷ পরিবর্তে আলাদা আলাদা ফর্ম্যাটে পৃথক ক্যাপ্টেন বেছে নেওয়া হয়৷

বিষয়টা ভালোভাবো নেননি আফগান ক্রিকেটাররা৷ মহম্মদ নবি, রশিদ খানের মতো দলের গুরুত্বপূর্ণ তারকারা প্রকাশ্যেই বোর্ডের এমন সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেন৷ আসগরের অপসারণ অক্রিকেটীয় কারণে বলে রশিদরা পাশে দাঁড়ান তাদের প্রিয় নেতার৷ যদিও তাতে এসিবি’র সিদ্ধান্ত বদল হয়নি৷ তাদের নির্বাচিত ক্যাপ্টেন হিসাবে বিশ্বকাপে জাতীয় দলের নেত্বের দায়ভার চাপে গুলবদিন নায়েবের কাঁধে৷

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপের সম্ভাব্য সেরা ক্রিকেটার বাছলেন ব্রেট লি

যার সুদৃঢ় অধিনায়কত্বে আফগান ক্রিকেটের শক্তিশালী হয়ে ওঠা, সেই আসগরের প্রতি অবিচারের প্রসঙ্গ মন থেকে উড়িয়ে দিতে পারছেন না বর্তমান ক্যাপ্টেন নায়েবও৷ তাই তিনি দলের ঐক্য বজায় রাখতে অত্যন্ত তৎপর৷ বিশ্বকাপ শুরুর ঠিক আগে আইসিসি’র অনুষ্ঠানে নায়েব জানান যে, হতে পারে এই মুহূর্তে আফগানিস্তানের নেতৃত্ব তাঁর হাতে রয়েছে৷ তবে আসগর আফগানকে এখনও নিজের ক্যাপ্টেন মনে করেন তিনি৷

নায়েব বলেন, ‘আয়ারল্যান্ড ও স্কটল্যান্ডের বিরুদ্ধে আমরা শেষ যে ক’টা ম্যাচ খেলেছি, আসগর আমাকে প্রভূত সাহায্য করেছে৷ ও আমাকে গাইড করেছে৷ আমার কাছে আসগর শুধু একজন দলের ক্রিকেটার নয়, ও এখনও আমার ক্যাপ্টেন৷’

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপে ধোনির ব্যাটিং অর্ডার নির্ধারণ করলেন সচিন

পরে গুবদিন আরও বলেন, ‘আসগরের সমর্থন দরকার আমার৷ শুধু ওর নয়, বরং নবি, রশিদের মতো দলের সব অভিজ্ঞ ক্রিকেটারেরই সমর্থন প্রয়োজন৷ আমাদের সবার একটাই লক্ষ্য, আমরা আফগানিস্তানের হয়ে মাঠে নামতে চাই একজোট হয়ে৷ দল হিসাবে আমরা লড়তে চাই৷ তা সে যেই ক্যাপ্টেন হোক না কেন৷’